ভারতের পাল্টা পাকিস্তানও করতে গিয়েছিল মিসাইল টেস্ট, ভেঙে পড়ল নিজের দেশেই! ভাইরাল ভিডিও

নয়া দিল্লিঃ কদিন আগেই ভারত আর পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছিল। এর প্রধান কারণ ছিল, ভারত থেকে একটি মিসাইলের ভুল পরীক্ষণ। তথ্য মতে, ভারত ওয়ারহেড ছাড়াই একটি মিসাইল টেস্ট করে যা রাজস্থানে গিয়ে পড়ার কথা ছিল। কিন্তু, সেটি সীমান্ত পেরিয়ে পাকিস্তানের মিয়াঁ চান্নু এলাকায় পড়ে।

এরপরই পাকিস্তান ভারতের বিরুদ্ধে মিসাইল হামলার গুরুতর অভিযোগ তোলে। যদিও, ভারত নিজেদের ভুল স্বীকার করে জানায় যে, মিসাইলটি যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে নির্ধারিত লক্ষ্য পার করে পাকিস্তানে গিয়ে পড়েছিল। এরজন্য ভারত ক্ষমাও চেয়ে নেয়। তবে, পাকিস্তান এই বিষয়ে যৌথ তদন্তের দাবি করে।

অন্যদিকে, এই ঘটনার পর বৃহস্পতিবার পাকিস্তান একটি ‘মিসাইল পরীক্ষা’ করে, যা ব্যর্থ হয়েছে। যদিও আনুষ্ঠানিকভাবে তা এখনো নিশ্চিত করা হয়নি। আসলে, পাকিস্তানের সিন্ধুর জামশোরোর বাসিন্দারা বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে একটি অজ্ঞাত বস্তু দেখতে পান। এই বস্তুটি একটি রকেট বা ক্ষেপণাস্ত্রের মতো ছিল, যা তার প্রক্ষিপ্ত পথের মাঝখানে ছিল।

সোশ্যাল মিডিয়া থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুসারে, বস্তুটি একটি ক্ষেপণাস্ত্র, যা পাকিস্তান তার সিন্ধুর পরীক্ষা পরিসর থেকে নিক্ষেপ করেছিল। পরীক্ষাটি সকাল ১১টায় করা হয়েছিল, এরপর TEL-এ (ট্রান্সপোর্টার ইরেক্টর লঞ্চার) ত্রুটির কারণে এক ঘন্টা পরে স্থগিত করা হয়েছিল। অবশেষে দুপুর ১২টায় পরীক্ষা করা হয়। কিন্তু, উৎক্ষেপণের কয়েক সেকেন্ড পর তার পথ থেকে পড়ে যেতে দেখা যায়, ক্ষেপণাস্ত্রের গতি তার কাঙ্খিত প্রজেক্টাইলের নিচে নেমে আসে এবং সিন্ধুর থানা বুলা খানের কাছে পড়ে।

যদিও, পাকিস্তানের কয়েকটি নিউজ চ্যানেল ঘটনাটি কভার করলেও সে দেশের কর্তৃপক্ষ নীরব। পাকিস্তানের সোশ্যাল মিডিয়া অনুযায়ী, স্থানীয় প্রশাসন এই ধরনের কোনও দাবি অস্বীকার করে বলেছে যে, এটি একটি নিয়মিত মর্টার ট্রেসার রাউন্ড ছিল, যা পার্শ্ববর্তী সীমান্ত থেকে ফায়ার করা হয়েছিল। তবে এটি অসম্ভাব্য যে, সর্বাধিক পাঁচ কিলোমিটার রেঞ্জের একটি মর্টারে ট্রেসার প্রজেক্টাইল এত বেশি থাকবে।

পাকিস্তানের এআরওয়াই নিউজ চ্যানেলের একজন সাংবাদিকের মতে, একটি “বিমান, রকেট বা এরকম কিছু” পড়ার খবর পাওয়া গিয়েছে। তিনি বলেন, পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে সিন্ধু প্রদেশের জামশোরোতে আকাশ থেকে একটি উড়ন্ত বস্তু পড়তে দেখা যাচ্ছে। বস্তুটি ধোঁয়ার লেজ নিয়ে নেমে আসছে বলে মনে হচ্ছে।

পাকিস্তানের বার্তা সংস্থা কনফ্লিক্ট নিউজ পাকিস্তান জানিয়েছে, ভারত থেকে ভুল করে ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্রের জবাবে পাকিস্তান ক্ষেপণাস্ত্রটি পরীক্ষা করে থাকতে পারে। জামশোর জেলা প্রশাসক বলেছেন, জনগণকে আতঙ্কিত হওয়ার দরকার নেই। তিনি বলেন যে, ভাইরাল ভিডিওটি কোট্রিতে একটি সামরিক অনুশীলনের সময় গুলি চালানো মর্টার ট্রেসার রাউন্ডের সাথে সম্পর্কিত।

কনফ্লিক্ট নিউজ পাকিস্তান টুইট করেছে, “জামশোরো, পাকিস্তান ভারতীয় ব্রহ্মোস ক্ষেপণাস্ত্রের প্রতিশোধ নিতে একটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে। পাকিস্তানি ক্ষেপণাস্ত্র তার লক্ষ্যে পৌঁছাতে ব্যর্থ হয়েছে এবং কাছাকাছি পড়ে গিয়েছে।”

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button