ব্যাংকে ৪৮,২৬২ কোটি টাকা জমা, কিন্তু তোলার কেউ নেই! ঘুম উড়ল RBI-র

এবার কেন্দ্রীয় রিজার্ভ ব্যাংক (Reserve Bank of India) চিন্তিত দেশের বিভিন্ন ব্যাংকে থাকা দাবিহীন অর্থ নিয়ে। এই অর্থের পরিমাণ কমার তো নামই নেই, বরঞ্চ বেড়েই চলেছে। সম্প্রতি সেই নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংক। শুধু তাই নয়, এবার থেকে ব্যাংকগুলিকেও বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করার নির্দেশ দিয়েছে তারা।

কিন্তু কীভাবে জমছে এই দাবিহীন টাকা? সে ব্যাপারেও তথ্য সামনে এনেছে RBI। তারা বলেছে , বিভিন্ন সেভিংস এবং কারেন্ট অ্যাকাউন্টের পাশপাশি বিভিন্ন মেয়াদ উত্তীর্ণ FD তেও ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে কোনো লেনদেন হয়নি। এতদিন ধরে কেও দাবি না করায় ওই টাকাকে দাবিহীন আমানত বলে ঘোষণা করেছে ব্যাংক।

তবে RBI এর কাছে চিন্তার বিষয় হলো যে, বছরের পর বছর লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সেই অর্থের পরিমাণ। যেখানে গত অর্থবর্ষে পরিমাণ ছিল ৩৯,২৬৪ কোটি টাকার, সেখানে এই অর্থবর্ষে পরিমাণ বেড়ে হয়েছে ৪৮,২৬২ কোটি টাকা! আপাতত এই সমস্যা থেকে বেরোতে যে রাজ্যগুলিতে এই ধরনের অর্থের পরিমাণ সবচেয়ে বেশি আছে সেগুলির ওপরই বিশেষ দৃষ্টিপাত করছে তারা।

কিন্তু কোন রাজ্যগুলিতে সর্বাধিক দাবিহীন অর্থ রয়েছে? RBI জানাচ্ছে যে, এক্ষেত্রে তালিকার একদম শীর্ষে রয়েছে তামিলনাড়ু। তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে পাঞ্জাব। পরবর্তীতে আছে গুজরাট, মহারাষ্ট্র, পশ্চিমবঙ্গ, কর্ণাটক, বিহার এবং তেলেঙ্গানা ইত্যাদি রাজ্য। এই রাজ্যগুলিতেই দাবিহীন আমানতের পরিমাণ সর্বোচ্চ।

কিন্তু কেন দিনের পর দিন এই অর্থের পরিমাণ বেড়েই চলেছে দেশজুড়ে? এই ব্যাপারে RBI বলে যে, বেশিরভাগ লোকই একাধিক সেভিংস অ্যাকাউন্ট এবং কারেন্ট অ্যাকাউন্ট ব্যাবহার করছেন। আর একই সাথে পূর্ববর্তী অ্যাকাউন্টগুলিকে বন্ধ করছেন না মোটেই। এছাড়া এমনও কিছু অ্যাকাউন্ট রয়েছে যেখানে অ্যাকাউন্টধারীর মৃত্যুর পরে অ্যাকাউন্টটি বন্ধ হয়ে সেখানেই পড়ে আছে টাকা।

rbi 1fa

কী করা হয় সেই টাকা দিয়ে? RBI সংশ্লিষ্ট ব্যাংক গুলির কাছে তথ্য সংগ্রহ করে কালেক্ট করে নেয় সেই টাকাগুলো। তারপর সেই দাবি হীন অর্থকে পাঠিয়ে দেয় Depositor Education and Awareness” (DEA) ফান্ডে। সেখানেই থাকে টাকা। পরবর্তীতে আমানতকারী টাকা ফেরত চাইলে তিনি তা সুদসহ ফেরত পেতে পারেন। কিন্তু RBI এর মাথাব্যথা বাড়িয়ে এই সমস্ত টাকা তো কেও চাইছেই না বরঞ্চ উল্টে দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে এই টাকার পরিমাণ। যার ফলে চিন্তার ভাঁজ RBI এর কপালে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button