৮ থেকে ৮০, মা হোক বা মাসি! ভারতের এই গ্রামে সবাই Youtube থেকে কামায় লাখ লাখ টাকা

ভারতে (India) জিও (Jio) লঞ্চ হওয়ার পর থেকে যেভাবে সহজলভ্য হয়ে উঠেছে ইন্টারনেট তাতে ইন্টারনেট ব্যাবহার করেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়াই বেশ মুশকিল। আর এই ইন্টারনেট এসে সাধারণ মানুষকে একটা আলাদা মঞ্চ দিয়েছে। এবার একেবারে প্রত্যন্ত গ্রামের এক যুবকও নিজের শিল্পকর্মের দ্বারা জনপ্রিয় হয়ে উঠতে পারে ইন্টারনেট জুড়ে। আজকে তেমনই এক গ্রামের কথা জানাবো, যেখানে গ্রামের সবাই ইউটিউব থেকে প্রতিমাসে বেশ মোটা টাকা আয় করেছেন।

আসলে আজ আমরা এমনই এক প্রত্যন্ত গ্রামের কথা বলতে চলেছি যেখানে জনসংখ্যা ৩ হাজার। এই গ্রামের সবাই ইউটিউবার! ছত্তিশগড়ের রাজধানী রায়পুর থেকে প্রায় ৪৫ কিলোমিটার দূরে থাকা তুলসী গ্রামের প্রতিটি বাড়িতেই রয়েছেন বিখ্যাত বিখ্যাত ইউটিবার। আর সেই সাথে গ্রামের প্রতিটি বাড়িতেই রয়েছেন একজন করে “কমেডি কিং”। গ্রামের বেশিরভাগ যুবকই আজকালের দিনে কমেডি ভিডিও বানিয়ে বেশ রোজগার করছেন। গ্রামের ৩ হাজার জনের ১ হাজার লোকই যুক্ত অভিনয়ের সাথে।

তুলসী গ্রামটিকে অনেকেই “লাফটার চ্যাম্পিয়ন”-দের গ্রাম হিসেবেও অ্যাখ্যা দিয়েছেন। সেখানে গ্রামের ১২ টি ইউটিউব চ্যানেলে আবার ইউটিউবের Monetization ও শুরু হয়ে গিয়েছে। চাকরি আর পড়াশোনার পাশাপশি গ্রামের অনেকেই অভিনয় করে ভালই রোজগার করছেন। এছাড়া সেখানের মানুষের অভিনয় সম্পর্কে আলাদা টানও রয়েছে। যেমন এক বড় চ্যানেল “নিগমা ছত্তিশগড়িয়া” চ্যানেলের শিল্পী সন্দীপ সাহুর মতে, “আমাদের গ্রামের মানুষ প্রথম থেকেই শিল্পের সঙ্গে যুক্ত। রামলীলা, নাটক ইত্যাদির মাধ্যমে যুবক থেকে বয়স্ক সবাই অভিনয়ে পারদর্শী হয়ে উঠেছেন। কিন্তু সঠিক প্ল্যাটফর্ম না পেয়ে তরুণরা এই পদক্ষেপ বেছে নিয়েছেন এবং ইউটিউবকে নিজের প্রতিভা বিকাশের মাধ্যম করে তোলেন।”

আয় কত হচ্ছে : ভিডিও তৈরি করে বেশ উপার্জন করছেন গ্রামের যুবক যুবতী এবং বয়স্করাও। সেই গ্রামের “নিগমা ছত্তিসগড়িয়া” চ্যানেল ছাড়া, “বিইং ছত্তিসগড়িয়া” ও বেশ বিখ্যাত চ্যানেল। কয়েক লক্ষ সাবস্ক্রাইবার থাকায় দারুণ আয় করছেন প্রত্যেক শিল্পীই। এক একটি চ্যানেল থেকে ১৫ হাজার টাকা আয় করছেন গ্রামবাসীরা। সমস্ত চ্যানেলের মোট আয় ছড়িয়ে যায় ১ লক্ষ টাকা!

গ্রামে বসেই লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করছেন গ্রামবাসীরা। কিন্তু শুধু কমেডি ভিডিওই কেন তৈরী করেন ? সেই সম্পর্কে গ্রামেরই জয় ভার্মা বলেন , “আমরা ‘বিইং ছত্তিশগড়িয়া’ নামের ইউটিউব চ্যানেলটি চালাই। এর আগে তুলসিতে, ২০১১ সাল নাগাদ তরুণরা কোন ধরণের ভিডিওকে প্রাধান্য দেওয়া উচিত তা বুঝতে পারত না। কিন্তু, পরে আমরা বুঝেছি যে, কমেডি ভিডিওগুলি বেশি সফল। এমতাবস্থায়, “কৌন বনেগা ক্রোড়পতি”-র আদলে একটি কমেডি ভিডিও তৈরি করা হয়। যা মানুষ খুব পছন্দ করেছে।”

tulsigaon 1661151680

এছাড়া তারা নাকি এও জানতে পারেন যে, খুবই অসুস্থ এক বয়স্ক ব্যক্তি তাদের ভিডিও দেখে অত্যন্ত আনন্দ পেয়েছিলেন। সেই খবর জানতে পেরে তারাও খুব খুশি হয়েছিলেন। এরপর একের পর এক কমেডি ভিডিও তৈরী করতে থাকেন তারা। এছাড়া নিজেদের গ্রামে বসেই তারা যেভাবে রোজগার করছেন তা বেশ প্রশংসনীয়।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button