বাজার শেষ মহিন্দ্রা স্করপিও, বোলেরোর! এবার নতুন রূপে ফিরছে সুমো, বাজার কাঁপাবে টাটা

আবারও শিরোনামে টাটা গ্রুপ (Tata Group)। আবারও একনার সকলকে চমকে দিল এই ভারতীয় কোম্পানি। আসলে অন্যান্য বিদেশী কোম্পানিকে টেক্কা দিতে গাড়ির বাজারে কড়া টক্কর দিচ্ছে টাটা মোটরস (Tata Motors)। বিশেষ করে যে হারে একের পর এক কোম্পানি ইলেকট্রিক গাড়ি (Electric Vehicle) আনছে সেখানে কিন্তু পিছিয়ে নেই এই টাটা মোটরসও। ভারতের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় গাড়ি নির্মাতা, টাটা মোটরস সম্প্রতি নেক্সন, সাফারি এবং হ্যারিয়ারের মতো বৈদ্যুতিক গাড়ি এনে সকলের রাতের ঘুম উড়িয়ে দিয়েছে।

tata

   

তবে এবার টাটা মোটরস টাটা সুমোকে (Tata Sumo) তার বৈদ্যুতিক নতুন অবতারে চালু করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। টাটা সুমো ইলেকট্রিক রেন্ডারের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে, যা দেখে চমকে গিয়েছে সকলে।

আসন্ন Tata Sumo EV Render, একটি চমকপ্রদ ডিজাইনের সঙ্গে আসতে চলেছে। এই গাড়িতে তিন সারির সিটিং ব্যবস্থা থাকছে। এটি তার আইসিই সমকক্ষের চেয়ে বেশি প্রিমিয়াম হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এতে ডেটাইম রানিং লাইটস (DRL) এবং ক্রসওভার লুকসহ অল-এলইডি লাইটিং রয়েছে। সামনের অংশে একটি কালো গ্রিল এবং ক্রোম লোগো রয়েছে, অন্যদিকে স্পোর্টি আলোও থাকবে যা গাড়িটির লুককে আলাদাই মাত্রা দেবে।

সুমো ইভি রেন্ডারে টাটা হ্যারিয়ার এবং টাটা সাফারির মতো ডাস্ট প্রটেকশন, উন্নত সুরক্ষা এবং অ্যাডভান্সড ড্রাইভার অ্যাসিসটেন্স সিস্টেম (এডিএএস) এর মতো বৈশিষ্ট্য গুলি অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে। অ্যান্ড্রয়েড অটো এবং অ্যাপল কারপ্লে, একটি কেন্দ্রীয় কনসোল এবং একটি ডিজিটাল ক্লাস্টার থাকবে। এছাড়া গাড়িতে টাচস্ক্রিন ইনফোটেইনমেন্ট-এরও ব্যবস্থা থাকতে পারে বলে অনুমান।

একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, সুমো ইভি রেন্ডারটি হ্যারিয়ারের বৈদ্যুতিক পাওয়ারট্রেন ব্যবহার করতে পারে, এতে দ্বৈত বৈদ্যুতিক মোটর এবং একটি শক্তিশালী ব্যাটারি থাকতে পারে। এটি প্রায় ৪০০-৫০০ কিলোমিটার মাইলেজ সরবরাহ করতে পারে।

tata sumo rander

মনে রাখবেন, টাটা সুমো ১৯৯৪ সালে চালু হওয়ার পর থেকে প্রায় ২৫ বছর ধরে ভারতে রাজত্ব করেছে। এর শক্তিশালী শরীর, অফ-রোডিং ক্ষমতা এবং কম রক্ষণাবেক্ষণ ব্যয়ের জন্য পরিচিত।

সম্পর্কিত খবর