৭৫ শতাংশ সহযোগিতা করবে সরকার! আজই শুরু করুন এই ব্যবসা, মাসে আয় হবে লাখ লাখ টাকা

নটা পাঁচটার চাকরি (Job) ছেড়ে নিজের কোম্পানির শুরু করছেন বর্তমানের তরুণ প্রজন্ম। চাকরির হাহাকার পরিস্থিতিতে এবার চাকরি থেকেই মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে তারা। এছাড়া ব্যাবসার (Business) পরিস্থিতিতেও এসেছে আমূল পরিবর্তন, বাড়িতে বসেই প্রচুর টাকা (Indian Rupee) উপার্জন করতে পারছে তারা আর সাথে এসেছে উদ্ভাবনী ক্ষমতা। এখনকার দিনে টিকে থাকতে গেলে যে উদ্ভাবনী ক্ষমতার কতটা প্রয়োজন তা বেশ বুঝেছে তরুণ প্রজন্ম।<

কেন্দ্র সরকার এখন ক্রমবর্ধমান প্লাস্টিক দুষণকে নিয়ন্ত্রণে আনতে একরকম নিষিদ্ধই করে দিয়েছে ওই পণ্য। এমতাবস্থায় আপনাদের জন্য একটি বিশেষ লাভজনক ব্যাবসার কথা তুলে ধরা হলো এই প্রতিবেদনে।

কি এই ব্যাবসা?
এখন বাজারে ক্রমেই কমে আসছে প্লাস্টিকের কাপের ব্যাবহার এবং কাগজের কাপের চাহিদা তুঙ্গে। তাই এই সময় এই ব্যবসা খুবই উপযুক্ত। কাগজের কাপের ব্যবসা করে খুব সহজেই বিপুল রোজগার করা সম্ভব। এছাড়া ব্যবসা শুরু করার জন্য কেন্দ্র সরকারের মুদ্রা স্কিম আপনাকে বিশেষ সহায়তা করবে। শুধু তাই নয়, ভর্তুকিও মিলবে সরকারের তরফে। জানা যাচ্ছে ব্যাবসার শুরুতে মাত্র ২৫% বিনিয়োগ করলেই বাকি ৭৫ শতাংশ ঋণ হিসেবে পাওয়া সম্ভব কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে।

কি কি প্রয়োজন এই ব্যবসাতে?
ব্যবসার শুরুতেই আপনার প্রয়োজন হবে পেপার কাপ তৈরীর একটি মেশিন। দেশের যেকোন বড় শহরেই খুব সহজে এই মেশিন পেয়ে যাবেন। এবং শুরুতে আপনি নিজের বাড়িতেও শুরু করতে পারেন এই ব্যবসা অথবা কোথাও জায়গা ভাড়াও নিতে পারেন। আপনার প্রয়োজন শুধু ৫০০ বর্গফুট জায়গার।<

কত খরচ হয় এই ব্যবসায়?
ব্যাবসার প্রয়োজনীয় সমস্ত যন্ত্রপাতি, সরঞ্জাম,বিদ্যুৎ এবং প্রি-অপারেটিভের জন্য আপনাকে প্রায় ১০.৭০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ করতে হতে পারে। এবার আপনি যদি কর্মী রাখেন তাহলেই প্রায় প্রতি মাসেই ৩৫,০০০ টাকা খরচ হবে।

paper cups

কত লাভ হয় এই ব্যবসাতে?
এই ব্যবসায় লাভের পরিমাণ যথেষ্ট বেশি। বছরে ৩০০ দিন কাজ করলে প্রায় ২.২০ কোটি পেপার কাপ তৈরী করতে পারবেন আপনি। এবার আপনি যদি এই কাপগুলো মাত্র ৩০ পয়সা লাভ রেখে বিক্রি করেন তাহলেও আপনার লাভের পরিমান ছড়িয়ে যাবে লক্ষাধিক টাকা।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button