মাথায় হাত পড়তে চলেছে সাধারণ মানুষের! RBI-র এই সিদ্ধান্তে বাড়বে খরচ

এবার মুদ্রাস্ফীতির কারণে আরেক বড় ধাক্কা খেতে পারেন সাধারণ মানুষ। সূত্র মারফৎ খবর আসছে যে, আগামী ৭ই ডিসেম্বর রিজার্ভ ব্যাংকের (Reserve Bank of India) মুদ্রানীতি কমিটির পরবর্তী বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে আরো একবার রেপো রেট বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে RBI। এবার ৩৫ বেসিস পয়েন্ট বাড়তে পারে রেপো রেট।

এর আগে পরপর তিনবার ৫০ বেসিস পয়েন্ট করে বেড়েছে রেপো রেট। আর তার ফল স্বরূপ অক্টোবর মাসে কিছুটা শক্তি হারিয়েছে মুদ্রাস্ফীতি নামক অর্থনৈতিক মহামারী। আগামীতে এই সমস্যাকে ধরাশায়ী করার জন্যই রিজার্ভ ব্যাংক কাজ করছে। আর সেই কারণেই আরো একবার বৃদ্ধি পাচ্ছে রেপো রেট।rbi cut removebg preview

চলতি বছরে মে মাস থেকে এখন পর্যন্ত রেপো রেট বেড়েছে ১৯০ বেসিস পয়েন্ট। সেই কারণে বর্তমানে ৫.৯০% রেপো রেট রয়েছে রিজার্ভ ব্যাংকের। একই সময়ে মুদ্রাস্ফীতি ৭.৪১% থেকে কমে ৬.৭৭% হয়েছে। অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে আরো একবার রেপোরেট ৩৫ বেসিস পয়েন্ট বাড়ার ফলে মুদ্রাস্ফীতি ৬.৫০% এ নেমে যাবে।

মুদ্রাস্ফীতি অনেকটা থাকার ফলে এবং সেই কারণে বেড়েছে রেপোরেট। কিন্তু মার্কেট এতকিছুর মধ্যেও বেশ ভালোই পারফর্ম করছে। আগামী সময়ে মুদ্রাস্ফীতি ৬ শতাংশেরও নীচে নামার সম্ভাবনা জানিয়েছে কোটাক মাহিন্দ্রা ব্যাংক।

মুদ্রাস্ফীতির সাথে রেপোরেটের কি সম্পর্ক?

মুদ্রাস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে একের পর এক গুরুত্বপূর্ন পদক্ষেপ নিয়েছে রিজার্ভ ব্যাংক। দেশীয় বাজারে মুদ্রাস্ফীতির মত অর্থনৈতিক সংকটকে শক্তিশালি হওয়ার আগেই বিভিন্ন জরুরী পদক্ষেপ গ্রহণ করে RBI। এর মধ্যে রেপোরেট বাড়ানো অন্যতম। রেপোরেট বাড়িয়ে দিলে দেশের মধ্যে টাকার প্রচলনও অনেকটা কমে যায়। এর ফলে মুদ্রাস্ফীতির মতো সমস্যার থেকে খানিক রেহাই মেলে।

rbi cut removebg preview

মুদ্রাস্ফীতি বেড়ে গেলে বিভিন্ন ব্যাংক RBI থেকে বেশী পরিমাণ সুদে টাকা নেয়। ফলে এই সময় বিভিন্ন লোন থেকে শুরু করে EMI অনেকটা দামী হয়ে যায়। আবার একই সময় স্থায়ী আমানতের ওপরেও সুদের হার অনেকটা বেড়ে যায়। দেশের অভ্যন্তরীণ বাজার থেকে টাকার পরিমাণ কম হলে মূল্যবৃদ্ধির মত সমস্যা অতটাও গুরুতর হতে পারবেনা।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button