একটা কাজ চাই! অসহায় হয়ে দাদা মিঠুন চক্রবর্তীকে চিঠি পরিচালক রাজ চক্রবর্তীর

রাজ চক্রবর্তী (Raj Chakrabarty), তিনি আজ টলিপাড়ার একজন সফল পরিচালক। তবে ছোট থেকে বেশ সাধারণ জীবনযাপন করেই বড় হয়েছেন তিনি। এখন অবশ্য সাফল্যের শিখরে রয়েছেন তিনি। জীবনসঙ্গিনী হিসেবে পেয়েছেন শুভশ্রীর (Subhashree Ganguly) মতো নায়িকাকে। তবে জীবনের শুরুটা আর পাঁচটা মধ্যবিত্ত পরিবারের থেকে খুব আলাদা ছিলনা তার।

জীবনে নানান ওঠাপড়ার মধ্যে দিয়ে আজ এই অবস্থানে এসে পৌঁছেছেন তিনি। তবে সমস্যার মুখে তাকেও পড়তে হয়েছে। আর সেই সময় মহাগুরু মিঠুন চক্রবর্তীর (Mithun Chakraborty) থেকে সাহায্য পান তিনি। সরাসরি চিঠি পাঠিয়ে সাহায্য কামনা করেন রাজ। মিঠুন চক্রবর্তীর ভাই হিসেবে দাবি করেন নিজেকে। খোদ রাজ একথা জানিয়েছেন।

আসলে এক সময় তিনি জি বাংলার জনপ্রিয় টক শো ‘অপুর সংসার’-এ উপস্থিত হয়েছিলেন। সঞ্চালক শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়ই এই ঘটনা নিয়ে প্রশ্ন করেন রাজকে। তিনি জানতে চান ঠিক কেন সাহায্য চেয়েছিলেন এবং কিরকম সাহায্য প্রার্থনা করেছিলেন তিনি। রাজ নিজেই সেই নিয়ে সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দেন।158788257 275791730583248 3333671518092819393 n

রাজ চক্রবর্তী জানান, তিনি শুনেছিলেন যে মিঠুন চক্রবর্তীর কাছে সাহায্য চাইতে গেলে তিনি কাওকেই ফেরান না। তাই তিনিও সাহায্য চেয়ে বসেন। আসলে হয়েছে কি, রাজ পড়তে বসে মাঝেমধ্যেই ঘুমিয়ে পড়তেন। আর সেই দৃশ্য তার মায়ের নজরে পড়লেই সমস্যার শেষ থাকেনি। তাঁর মা রীতিমত মেরে তাঁকে বাড়ি থেকে বার করে দিতেন। তবে শাস্তিতে সেরকম সমস্যা থাকেনি, কারণ তিনি তখন দৌড় লাগাতেন মিঠুন চক্রবর্তীর সিনেমা দেখতে।

এরপর আবার তাতেও বিপত্তি, রাজের মা হিড় হিড় করে কান ধরে টেনে নিয়ে আসতেন বাড়িতে। তারপর ঠান্ডা মাথায় জল ঢেলে দিতেন তিনি। অতিষ্ট রাজ তখন নামের শেষের উপাধি এক হওয়ায় মিঠুনকে নিজের বড় দাদা ভেবে সাহায্য চেয়ে চিঠি লিখেন। পড়তে ভালো না লাগে কাজ খোঁজেন তিনি। মিঠুনকে পাঠানো চিঠিতে রাজ উল্লেখ করেন তারা দুজনেই চক্রবর্তী, তাই তারা দুই ভাই! আর এসব শুনে হাসির রোল ওঠে শোতে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button