Jio, Airtel-র দাদাগিরি শেষ! মাত্র ২২৮ টাকায় ১ বছর সক্রিয় থাকবে নম্বর! মাসে খরচ মাত্র ১৯ টাকা

ভারতীয় বাজারে Jio আসার পর বদলেছে অনেক কিছু। বিপুল পরিমাণ মানুষের কাছে সহজলভ্য হয়েছে ইন্টারনেট। কিন্তু বর্তমানে পরপর প্ল্যানের দাম বাড়িয়ে গ্রাহকদের ক্ষুন্ন করেছে তারা। তবে Jio শুধু একা নয়, বহুমূল্য হয়েছে Airtel এবং Vi এর প্ল্যানও। আর দাম বাড়ার সাথে সাথেই সাধারণ মানুষের পকেটে টান পড়েছে অনেকটাই। এমনকি প্রথমে ধারণা করা হচ্ছিল যে সংস্থাগুলি নিজেদের প্ল্যানের মেয়াদ ২৮ দিন থেকে বাড়িয়ে ৩০ বা ৩১ দিন করবে হয়তো, কিন্তু সেই পথে তো হাঁটেইনি সংস্থাগুলো। বরঞ্চ তারা আরো নয়া প্ল্যান চালু করেছে ২৮ দিনের মেয়াদেই। আর এর ফলে পকেট গড়ের মাঠ হচ্ছে সাধারন মানুষের। কিন্তু উপায় কি?

কিন্তু কেমন হবে যদি আপনাদের বলি যে আপনি মাত্র ১৯ টাকা দিয়েই ৩০ দিনের বৈধতা যুক্ত প্ল্যান পেয়ে যাবেন? হ্যাঁ ঠিকই পড়ছেন, কিন্তু কারা লঞ্চ করল এই প্ল্যান? প্রতিবারের মত এবারেও দেশবাসীকে রক্ষার কার্যে এগিয়ে এসেছে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা BSNL। বাজারে Jio, Airtel, Vi-কে এবার কড়া টক্কর দিতে চলেছে তারা। আসলে কিছুদিন আগেই ট্রাই (Telecom Regulatory Authority of India) সমস্ত টেলিকম সংস্থাগুলিকে ২৮ দিনের পরিবর্তে ৩০ বা ৩১ দিনের রিচার্জ প্ল্যান নিয়ে আসার নির্দেশ দিলেও এখনো সেই কাজ করেনি বাকি সংস্থাগুলি। কিন্তু BSNL-র এই পদক্ষেপ কড়া প্রতিযোগিতা দিচ্ছে ভারতীয় বাজারে। তো চলুন দেখি কি প্ল্যান রয়েছে BSNL এর।

BSNL এর সবচেয়ে সস্তা প্ল্যান

মার্কেটে সবচেয়ে সস্তা প্ল্যান লঞ্চ করেছে তারা। এই নিয়া প্ল্যানের নাম Voice Rate Cutter_19। এই প্ল্যান রিচার্জ করলে কল করার জন্য আপনাকে দিতে হবে ২০ পয়সা প্রতি মিনিট। পুরো ৩০ দিন বৈধতার সাথে পাওয়া যাবে এই প্ল্যান। তবে এক্ষেত্রে আপনাকে কল করার জন্য আলাদা করে ব্যালেন্স রিচার্জ করতে হবে। কিন্তু ইনকামিং এবং এসএমএস ফ্রি তেই পেয়ে যাবেন

এই প্ল্যান তাদের জন্য খুব ভালো হবে যারা দুটো সিম ব্যাবহার করেন। এছাড়া দেশে অনেক মানুষ আছেন যারা শুধুমাত্র তাদের ফোন নাম্বারটি সক্রিয় রাখার জন্য রিচার্জ করেন। এক্ষেত্রে তাদের সেই সকল সুবিধা উপলব্ধ হবে। আপনার নাম্বার চালু রাখার জন্য এর চেয়ে ভালো প্ল্যান আর কিছু হতে পারে না। এবার প্রতি মাসে আপনাকে ১৯ টাকা রিচার্জ করতে হবে মানে সারা বছরে মাত্র ২২৮ টাকা রিচার্জ করলেই আপনি সারা বছর অপনার নাম্বার চালু রাখতে পারবেন। যা আপনি বাকি কোম্পানির প্ল্যানে পারবেননা।

কোথায় পিছিয়ে রয়েছে BSNL?

আসলে রাষ্ট্রায়ত্ত এই সংস্থাটি এখনো অনেকখানি পিছিয়ে আছে 4G পরিষেবায়। বাকি কোম্পানি গুলো যেখানে 5G পরিষেবা শুরু করতে চলেছে, সেখানে BSNL এখনো সারা দেশে 4G শুরু করতে পারেনি। তবে ১৫ আগস্টের মধ্যে সারা দেশে 4G শুরু করবে বলে জানা যাচ্ছে। এবং শীঘ্রই 5G NSA পরিষেবা শুরু করতে চলেছে তারা।

bsnl logo 1200 3

4G এর পরিষেবা উপলব্ধ না থাকা ছাড়াও আরো একখানা গভীর সমস্যা রয়েছে তাদের যে কারণে BSNL কে এখনো মেইনস্ট্রিম জনগণ ব্যাবহার করতে চায়না, আর তা হলো BSNL এর অত্যন্ত খারাপ পরিষেবা। এমতবস্থায় সংস্থাটি যদি তাদের পরিষেবার উন্নতি করে, তাহলে লক্ষ লক্ষ গ্রাহক তাঁদের মোবাইল নম্বর BSNL-এ পোর্ট করবেন। আর এর ফলে দেশের সবচেয়ে বড় টেলিকম কোম্পানিতে পরিণত হতে পারে সংস্থাটি।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button