তেলের জন্য আর সৌদির উপর নির্ভর নয়, ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম তেল সরবরাহকারী দেশ হয়ে উঠল রাশিয়া

রাশিয়া (Russia) ইউক্রেন (Ukraine) বিবাদের অতিবাহিত হয়েছে ১১১ দিন, কিন্তু এই যুদ্ধ থামার কোন লক্ষণ দেখা যাচ্ছেনা এখনো। যুদ্ধের কারণে বিশ্বের অধিকাংশ দেশ বিশেষত পশ্চিমা দেশগুলো খুবই কড়া অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে রাশিয়ার ওপর। সেই কারণে রাশিয়ার অর্থনৈতিক অবস্থার হালও তথৈবচ। কিন্তু এরই মধ্যে ভারত (India) আর রাশিয়ার সখ্যতা যেন বেড়েই চলেছে। সম্প্রতি রিপোর্ট অনুযায়ী বর্তমানে রাশিয়া ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম তেল (Petroleum) সরবরাহকারী দেশে পরিণত হয়েছে।

মাত্র কয়েকদিন আগে অর্থাৎ এপ্রিল মাসের রিপোর্ট অনুযায়ী রাশিয়া ভারতের ৪র্থ বৃহত্তম তেল সরবরাহকারী দেশে ছিল, আর মে মাসের রিপোর্ট থেকে জানা যাচ্ছে আরো দুই স্থান ওপরে এসে এখন তারা দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। প্রথম স্থানে অবশ্য এখনো ইরাক নিজেদের অবস্থান অক্ষুন্ন রাখতে পারলেও, নিজেদের জায়গা হারিয়েছে সৌদি আরব। জানা যাচ্ছে মে মাসে ভারতের তেল কোম্পানি গুলো রাশিয়া থেকে রেকর্ড ৮,১৯,০০০ ব্যারেল রাশিয়ান তেল কিনেছে। এছাড়া গত ২০২১ থেকে এই অনুপাত বেড়েছে মোট ৯ গুণ।

কিন্তু ভারত আর রাশিয়ার এই রেকর্ড এমন একসময় তৈরি হয়েছে যখন কিনা সারাবিশ্বেই রাশিয়াকে কোণঠাসা করার লক্ষ্যে আরোপ করেই চলেছে অর্থনৈতিক এবং রাজনৈতিক নিষেধাজ্ঞা। এমনকি ইন্টারন্যাশনাল মুদ্রা, ডলার থেকেও কাট করে দেওয়া হয় রাশিয়াকে। বহু চাপের মুখে পড়ে রাশিয়া তাদের সবেধন নীলমণি তেলের দামে ছাড় দেয়। যুদ্ধের কারণে আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম একেবারে আকাশছোঁয়া থাকলেও রাশিয়া তাদের তেলে বিপুল ছাড় দিয়েছে।

আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম ছুঁয়ে গেছিল ১১৭ ডলার প্রতি ব্যারেল, আর সেই সময় রাশিয়া তাদের তেল বিক্রি করছিল ব্যারেল প্রতি ৮০ থেকে ৯০ ডলার। আর এর পরই ভারত সিদ্ধান্ত নেয় রাশিয়া থেকে তেল নেওয়ার। যদিও এজন্য পশ্চিমী দেশগুলোর কুনজরে পড়ে ভারত। এদিকে ভারত ও রাশিয়া নিজেদের মধ্যে ব্যবসা বাড়িয়েই চলায় অখুশি চিনও। তবে ভারত এবং রাশিয়ার মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক নিয়ে ভারতে থাকা রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত ডেনিস আলিপভ জানান যে, রাষ্ট্রপতি পুতিন ভারতের সাথে সম্মানজনক সম্পর্ককে বিশেষ প্রাধান্য দেন এবং বিশ্বের অন্যান্য সমস্ত প্রধান ইস্যু গুলিতেও উভয় দেশের মতামত অনেকাংশে একই হয়।

oil barrels

প্রসঙ্গত, ভারতের দেশীয় তেল কোম্পানি যেমন, হিন্দুস্তান পেট্রোলিয়াম, ভারত পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন লিমিটেড, ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন এবং ম্যাঙ্গালোর রিফাইনারি নিজেরাই রাশিয়ান তেল কিনে চলেছে। জানা যাচ্ছে সম্প্রতি রাষ্ট্রীয় সংস্থা ভারত পেট্রোলিয়াম ২ মিলিয়ন ব্যারেল রাশিয়ান তেল কিনেছে এবং কোচির শোধনাগারের জন্যও প্রায় প্রতিদিন ৩,১০,০০০ ব্যারেল তেল কিনেই চলেছে। এবং লেটেস্ট রিপোর্ট অনুযায়ী গত ২৪ ফেব্রুয়ারি অর্থাৎ যুদ্ধ শুরুর পর থেকেই ভারত তাদের তেল কেনার পরিমাণ বাড়িয়ে দিয়েছে রাশিয়া থেকে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button