‘আমি বাহককে … প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি” ভারতীয় টাকার উপর লেখা এই কথার মানে জানেন কী!

টাকা পয়সার লেনদেন আমরা সবাই করে থাকি। কিন্তু কখনও লক্ষ্য করে দেখেছেন কি যে, ১০ টাকা থেকে ২০০০ টাকার নোটে একটি বিশেষ বাক্য লেখা থাকে। বাক্যটি হলো “I promise to pay the bearer the sum of ….. rupees”। ভালো করে লক্ষ্য করলে দেখতে পাবেন হিন্দি এবং ইংরেজিতে এই লাইনটি লেখা থাকে। কিন্তু কখনও ভেবে দেখেছেন কি যে, এই লাইনটির তাৎপর্য কী?

প্রসঙ্গত, ১০ থেকে ২০০০ ভারতের সমস্ত নোট তৈরি এবং বিতরণের দায়িত্ব ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্কের। এই সমস্ত নোটেই আরবিআই গভর্নরের স্বাক্ষর থাকে আর তার সাথে থাকে বিশেষ লাইনটি। জানিয়ে রাখি, ‘রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া’র প্রতিষ্ঠা হয় ১৯৩৫ সালের ১ লা এপ্রিল। এর আগে অবদি ভারতের সমস্ত নোট ছাপানোর দায়িত্বে ছিলো খোদ ভারত সরকার। তবে পরবর্তীতে ‘রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া অ্যাক্ট’এর ২২ নম্বর ধারা অনুযায়ী নোট ছাপানোর দায়িত্ব পায় আরবিআই। চলুন এবার ১০ থেকে ২০০০ এর নোটে এই লাইনটির অর্থ জেনে নেওয়া যাক।

আসলে এই লাইনটি দ্বারা আরবিআই মানুষকে প্রতিশ্রুতি দেয় যে, ভারতের যে কোনো জায়গায় ঐ মূল্যের বিকল্প বিনিময় আপনি পাবেন। উদাহরণস্বরূপ আপনার কাছে ৫০০ টাকার নোট আছে। এখন প্রশ্ন আসে একটা কাগজের নোটের পরিবর্তে কেউ আপনাকে ৫০০ টাকা মূল্যের জিনিস দেবে কেন? এখানেই এই লাইনটির গ্রহণযোগ্যতা।

“আমি বাহককে টাকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি”( I promise to pay the bearer the sum of ….. rupees) এই প্রতিশ্রুতি দ্বারা বোঝায় যে, কোনও নাগরিক এই অর্থ গ্রহণ করতে অস্বীকার করতে পারে না কারণ এটি করা সরকার দ্বারা সমর্থিত।

এক টাকার নোটে আরবিআই গভর্নরের স্বাক্ষর নেই : এর সাথে, আমরা আপনাকে জানিয়ে রাখি যে, ১ টাকার নোট ব্যাতিত সব নোট গুলি রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া কর্তৃক ছাপানো হয়। শুধু মাত্র ভারতীয় অর্থ মন্ত্রক ১ টাকার নোট ছাপায়।

india rupee money q3r

তির্যক লাইন নোটের উপর তৈরি করা হয় : এছাড়াও আপনি হয়তো লক্ষ্য করে থাকবেন যে, ১০০,২০০,৫০০ এবং ২০০০ টাকার নোটের পাশে একটি তীর্যক লাইন থাকে, এগুলিকে বলা হয় ‘ব্লিড মার্কস’। এই বিশেষ লাইনটি রাখা হয় দৃষ্টিহীন মানুষদের জন্য। যাতে তারা নোটের উপর হাত দিয়ে এই লাইনগুলি স্পর্শ করে বুঝতে পারে সেটি কত টাকার নোট। তাই ১০০, ২০০, ৫০০ এবং ২০০০ টাকার নোটে বিভিন্ন নম্বর লাইন করা হয়েছে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button