ভারতের বিচিত্র রেল স্টেশন, যেখানে যায়না কোনও যাত্রী! আড়াই বছর আগেও ছিল জাঁকজমক পূর্ণ

রেল স্টেশনে যে প্রচন্ড ভিড় হবে সেটা দেখতেই বেশী অভ্যস্ত হয়ে গিয়েছি আমরা। ভিড়, হই হট্টগোলে ভরে থাকে সারা স্টেশন। কিন্তু আপনাদের যদি বলি যে, ভারতেই এমন এক স্টেশন রয়েছে যেখানে দীর্ঘ আড়াই বছরে পা পড়েনি কোনো যাত্রীর, শুনতে কেমন অবিশ্বাস্য লাগছে তাই না? কিন্তু ঠিক এমনটাই হয়েছে।

ঘটনাটা ঝাড়খণ্ডের রাজধানী রাঁচি থেকে ২০ কিমি দূরের। সেখানের এক স্টেশনে সুদীর্ঘ আড়াই বছরে পা দেয়নি কোনো যাত্রী। এমনকি সেখান থেকে যাত্রীবাহী ট্রেন ছাড়ার সংখ্যাও শুন্য। অথচ আড়াই বছর আগের দৃশ্য ছিল অন্যরকম। স্টেশন থেকে শত শত যাত্রী নিত্য যাত্রা করতেন।

এই শুনশান স্টেশনের নাম মেসরা স্টেশন। কয়েক বছর আগে এই স্টেশন থেকে ট্রেন চলাচল শুরু হয়। কিন্তু আজ এই স্টেশনের অবস্থা ভিন্ন। স্টেশনের অনুসন্ধান কেন্দ্রে এখন যাত্রীদের নয়, দেখা যায় বিভিন্ন গবাদি পশু থেকে কুকুর বিড়ালদের ভিড়। ফাঁকা জায়গা দেখে গজিয়ে ওঠেছে ঘাস। চারিদিক নোংরাতে ভর্ত্তি। সারা দেওয়াল জুড়ে মহা সমারোহে জাল বেঁধেছে মাকড়সার জাল।

দীর্ঘ সময় ধরেই যে স্টেশনে কেও আসেনি বা পরিষ্কার করা হয়নি সেটা একবার দেখলেই বোঝা যায়। প্ল্যাটফর্মে যে বসার ব্যবস্থা করা হয়েছিল সেটিও ভেঙে পড়ছে। স্টেশন চত্বরে থাকা দালান গুলোও ভেঙে ভেঙে পড়ছে। সাথে স্টেশন চত্বরে দেখা গিয়েছে বাচ্চাদের সাইকেল চালিয়ে মজা করতে। কিন্তু এরকম বেহাল অবস্থা হলো কিভাবে?

mesra station ranchi(2)

আসলে করোনা পরিস্থিতিতে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তারপর আর ট্রেন পরিষেবা শুরু করা যায়নি। দুই মাস আগে ট্রেন চালানোর পরিকল্পনা করে সরকার। অনিবার্য কারণে সেই সিদ্ধান্ত বাতিল হয়ে যায়। তারপর থেকে আর ট্রেন চালানোর কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি সরকার। এছাড়া সানকি থেকে সিদেশ্বর পর্যন্ত রেললাইনের কাজও শেষ হয়নি। এই কারণে বারকানা পর্যন্ত রেললাইন সংযোগ করা যায়নি। এ বছরের শেষ নাগাদ নির্মাণকাজ শেষ হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button