ছোটবেলায় কেমন দেখতে ছিলেন Jio-র মালিক মুকেশ আম্বানি, রইল দুর্লভ ছবি! দেখলে ‘হাঁ” হয়ে যাবেন

রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের মালিক মুকেশ আম্বানি (Mukesh Ambani) আজ দেশের সবচেয়ে বড় ব্যবসায়ীদের একজন। ভারতের দ্বিতীয় ধনীতম ব্যবসায়ী তিনি, তাই তার পরিচিতি অনেকটাই বেশী। বিশেষ করে মুকেশ আম্বানি জিওর (Jio) মাধ্যমে সস্তায় ইন্টারনেট পরিষেবা শুরু করার পর থেকে তাঁর জনপ্রিয়তা বেড়েছে কয়েকগুণ। আজকালের তরুণরা মুকেশ আম্বানিকে অনেক বেশি অনুসরণ করে চলে এবং বর্তমানে অনেক মানুষের অনুপ্রেরণার উৎসও তিনি।

ambani family 20101004

   

কিন্তু সবদিন এরকম যায়নি তার, মুকেশ আম্বানির কঠোর পরিশ্রমের কারণেই আজ তিনি শুধুমাত্র ভারত নয়, এশিয়ার শীর্ষ ৫ ধনী ব্যক্তির তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন। তার জনপ্রিয়তাও কোনো সেলিব্রেটির থেকে কম নয়। মানুষ এখন তার সম্পর্কেও অনেক কিছু জানতে আগ্রহী। তাই আমরা আজ আপনাদের মুকেশ আম্বানির ছোটবেলার কিছু ছবি দেখাতে চলেছি।

hkhhjjh

খুব কম লোকই জানেন যে শৈশবে মুকেশ আম্বানি দেখতে কেমন ছিলেন। আজ আমরা সেই রহস্যই উন্মোচন করতে চলেছি আপনাদের সামনে। মুকেশ আম্বানি ধীরুভাই আম্বানির বড় ছেলে। ধীরুভাই আম্বানি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন রিলায়েন্স কোম্পানির। তার মায়ের নাম কোকিলাবেন আম্বানি। এছাড়া মুকেশ আম্বানির এক ভাই রয়েছেন, যার নাম অনিল আম্বানি। তিনিও একসময় খুব বড় ব্যবসায়ী ছিলেন। মুকেশ আম্বানির রয়েছে আরো দুই বোন, যার নাম দীপ্তি সালগাঁওকর এবং নীনা কোঠারি।

mukesh ambani childhood 1

১৯৫৭ সালের ১৯ এপ্রিল মুকেশ আম্বানি জন্মগ্রহণ করেন। নিজের শৈশবের বেশিরভাগ সময়ই কেটেছে ইয়েমেনে। মুকেশ আম্বানি যখন প্রথম মুম্বাই আসেন, তখন তিনি তার পরিবারের সঙ্গে ভুলেশ্বরের একটি সাধারণ দুই বেডরুমের ফ্ল্যাটে থাকতেন। ১৯৭০ সাল পর্যন্ত তিনি সেখানেই বাস করতেন। ছোটবেলা থেকে সেরকম কোনো স্বাচ্ছন্দ্য পাননি তিনি।

পরবর্তী সময়ে মুকেশের বাবা ধীরুভাই আম্বানি কোলাবায় একটি ১৪ তলা বিল্ডিং কিনেছিলেন। মুকেশ আম্বানি এবং অনিল আম্বানি তাদের পরিবারের সাথে বহু বছর ধরে এখানে বসবাস করেন। ধীরুভাই তার ব্যবসার কারণে বেশিরভাগ সময় ব্যস্ত থাকতেন, তাই মুকেশ আম্বানি এবং তার ভাইবোনদের পুরো দায়িত্ব মহেন্দ্রভাই নামে একজন কেয়ারটেকারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল। মহেন্দ্রর সাথেই নিজের বেশিরভাগ সময় কাটিয়েছেন মুকেশ আম্বানি।

dhirubhai ambani

ছোটবেলায় খেলাধুলাতেও দারুণ আগ্রহ ছিল তার। ফুটবল এবং হকি ছিল তার বিশেষ পছন্দের। তবে পড়াশোনার ক্ষেত্রে তিনি একজন গড়পড়তা ছাত্র ছিলেন। কিন্তু তার বাবা ধীরুভাই আম্বানি তার ছেলের নম্বর নিয়ে খুব একটা চিন্তিত ছিলেন না। তিনি শুধু ছেলের সার্বিক পারফরম্যান্সের দিকে নজর রাখতেন। স্কুল শেষ করার পর, মুকেশ আম্বানি কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে বিই করেন এবং তারপর MBA সম্পন্ন করেন।

সম্পর্কিত খবর