বিক্রি হতে চলেছে এই দুটি কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক! অ্যাকাউন্ট থাকলে এখনই হয়ে যান সাবধান

দেশের কিছু বিষয় আসতে চলেছে পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপ। সরকার দ্রুত পদক্ষেপ নিচ্ছে এই বিষয়ে। খুব তাড়াতাড়িই দুটি সরকারি ব্যাঙ্কের বেসরকারিকরণ হতে চলেছে। জানা যাচ্ছে বিড’ও আসতে শুরু করেছে। সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে চলতি বছরেই শুরু হয়ে যেতে পারে এই বেসরকারিকরণ প্রক্রিয়া। অপরদিকে বিভিন্ন সরকারি কর্মচারীরা সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে সামিল হয়েছে।

প্রসঙ্গত, দুজন সরকারি কর্মকর্তার বয়ান থেকে জানা গিয়েছে যে, বেসরকারিকরণের প্রস্ততি প্রায় সম্পূর্ণ। তবে মন্ত্রীসভা থেকে অনুমোদন আসতে আরও একটু সময় লাগবে। সূত্র মারফত খবর, আসন্ন বাদল অধিবেশনে পুরোনো নিয়ম সংশোধিত হতে পারে। এখনও পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী চলতি বছরের সেপ্টেম্বরের মধ্যেই অন্তত একটি ব্যাঙ্কের আংশিক বেসরকারিকরণ সেরে ফেলতে চায় সরকার।

সরকারের ইচ্ছা যত জলদি সম্ভব ব্যাঙ্কিং রেগুলেশন অ্যাক্ট সংশোধন করে PSU ব্যাংকগুলিতে ইতিমধ্যে ২০ শতাংশ বিদেশী মালিকানা অপসারন করতে চাইছে কেন্দ্র। এরজন্য ইতিমধ্যে সমস্ত ব্যাংকগুলির মধ্যে দুটি ব্যাংককে শর্ট লিস্ট করেছে সরকার। তবে এর ফলে জনগনের ওপর কোনো প্রভাব পড়বে না বলেই জানা গেছে।

মিডিয়া রিপোর্ট থেকে জানা যাচ্ছে যে, ইতিমধ্যে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুই সরকারি কর্মকর্তা জানান যে সরকারের এই ব্যাপারে প্রস্তুতি প্রায় তুঙ্গে। কিন্তু এক্ষেত্রে মন্ত্রিসভার অনুমোদনের জন্য আরো কিছুটা সময় লাগতে পারে। এজন্য সরকার ধরেই নিয়েছে যে, বাদল অধিবেশনের শেষের দিকে এই নিয়ম সংশোধিত হতে পারে। তবে ইতিমধ্যে সমস্ত ব্যাংকে এই নিয়ম লাগু না হলেও সেপ্টেম্বরের মধ্যেই অন্তত একটি ব্যাঙ্কের বেসরকারিকরণের লক্ষ্য নিয়েছে কেন্দ্র সরকার। তবে এখনো সমস্ত ব্যাংকের নাম চূড়ান্ত করেনি সরকার।

তবে এখনো অনেকে ধন্ধে রয়েছেন যে, কোন দুটি ব্যাংককে প্রথম বেসরকারিকরণ করা হবে। তবে এই প্রসঙ্গে সূত্র মারফত জানা গিয়েছে যে সরকার সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া এবং ইন্ডিয়ান ওভারসিজ ব্যাঙ্ককে সম্ভাব্য বেসরকারিকরনের প্রথম প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত করেছে সরকার। অর্থাৎ সরকার প্রথমেই ইন্ডিয়ান ওভারসিজ ব্যাঙ্ক এবং সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়াকেই বেসরকারিকরণের কথা ভাবছে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button