আলু চাষের জন্য ছেড়ে দেন পুলিশের চাকরি, আজ এই আইডিয়াকে কাজে লাগিয়ে কোটি টাকার মালিক

আজ আমরা আপনাদের সামনে এমন একজন ব্যক্তির গল্প নিয়ে হাজির হয়েছি যিনি পুলিশ বাহিনীর অংশ হয়ে দেশের সেবা করে এখন আবার কৃষিকাজে সাফল্য লাভ করে নয়া দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। তিনি গুজরাট পুলিশের প্রাক্তন ডিএসপি পার্থিভাই চৌধুরী। গুজরাটের বনাসকাঁথার বাসিন্দা পার্থিভাই পুলিশ বাহিনী থেকে অবসর নিয়ে শুরু করেন চাষ।

আলু চাষ দিয়ে শুরু করেছিলেন কৃষিকাজ, আর এখন সেখান থেকে তিনি এতটাই লাভ করছেন যে বছরে তার রোজগার ৩ কোটিরও বেশি। অনেক কৃষক এখন তার কাছে আসেন টিপস নিতে। জানলে অবাক হবেন পার্থিভাই এখন আর শুধু চাষই করছেননা , সেখান থেকে আলু উৎপাদনের বিশ্ব রেকর্ডও বানিয়েছেন

৬২ বছর বয়সী পার্থিভাই ১৯৮১ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত গুজরাট পুলিশে কাজ করেন তারপর DSP পদ থেকে অবসর নিয়ে আলু চাষে জোর দিতে শুরু করেন। আলু চাষের ধারনা আসে যখন ২০০৩ সালে পার্থিভাইয়ের বাবা তার জমি পাঁচ ভাইয়ের মধ্যে ভাগ করে দেন। নিজের প্রাপ্য জমিতে ভিন্ন কিছু করতে চেয়েছিলেন তিনি। প্রগতিশীল কৃষকদের ক্ষেত পরিদর্শন করে থেকে আধুনিক চাষাবাদের কৌশল শিখে আলু চাষে নামেন তিনি।

এরপর ২০০৪ সাল থেকে কৃষিকাজ শুরু করলেও পুলিশ বাহিনীতে কাজ করায় ছুটিতে যতটা সময় পেতেন, চাষাবাদে মনোনিবেশ করতেন। একাই ৫ একর জমিতে চাষ শুরু করেন, আর সেখানে লাভ হওয়ায় আশেপাশের কিছু জমিও কিনে নেন। আজ তার মোট ৮৭ একর জমি রয়েছে। সেখানে তিনি শুধুই আলু চাষ করেন। সেইসাথে ১৬টি পরিবারকে কাজ দিয়েছেন তিনি। আলু ছাড়াও এখন সেইসাথে শুরু করেছেন বাজরা, চীনাবাদাম চাষও শুরু করেছেন তিনি।

বর্তমানে প্রাক্তন পুলিশ অফিসার পার্থিভাই বিশ্বের সবচেয়ে বেশি সংখ্যক আলু চাষের রেকর্ডের অধিকারী। তার আগে এই রেকর্ডটি ছিল নেদারল্যান্ডসের এক কৃষকের নামে। প্রতি হেক্টরে ৮৪ মেট্রিক টন আলু চাষ করেছিলেন তিনি। এই রেকর্ড ভাঙার পর পার্থিভাইয়ের নামও ফোর্বসের তালিকায় উঠে আসে।

parthibhaichaudharyearns3 3crorefromaalukikhetiinbanaskandagujarat 1605534243 5fd33fac2cae7

পার্থিভাইয়ের এই গল্প কঠোর পরিশ্রম এবং দৃঢ় সংকল্পের গল্প। তার সাফল্য আজ অনেক পরিবারকে কর্মসংস্থান প্রদান করেছে আর সেইসাথে অনেক কৃষককে নিজেদের চাষের উন্নতি সাধন করতেও সাহায্য করেছে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button