‘আল্লাহু আকবর’ বলা পড়ুয়াকে ৫ কোটি টাকা দিচ্ছেন সালমান-আমির? ছড়িয়ে পড়ল খবর

মুম্বইঃ কর্ণাটক হিজাব বিতর্ক সারা দেশে আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছে এবং বিষয়টি আদালত পর্যন্ত পৌঁছেছে। সম্প্রতি, হিজাব মামলায় মুসকান খান নামের একটি মেয়েকে কলেজে হিজাব পরে ‘আল্লাহ হু আকবর’ স্লোগান দিতে দেখা যায় এবং ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর, কিছু লোক মুসকানকে সমর্থন করেছিল এবং তার সাহসের প্রশংসা করেছিল, আবার কেউ কেউ হিজাব পরে কলেজে আসার জেদের সমালোচনা করেছিল।

এদিকে, সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছু পোস্ট দেখা গিয়েছে, যেখানে দাবি করা হয়েছে যে সালমান খান এবং আমির খান সহ তুর্কি সরকার মুসকান খানকে 5 কোটি টাকা দেবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের এসব পোস্টের সত্যতা কী? জেনে নিন এই প্রতিবেদনে।

   

screenshot 2022 02 12 at 8.33.39 pm

উল্লেখ্য, এমন কিছু পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হচ্ছে, যেখানে এমন দাবি করা হচ্ছে যে তুর্কি সরকার সহ সালমান খান এবং আমির খান ‘আল্লাহ হু আকবর’ স্লোগান তোলা মুসকান খানকে 5 কোটি টাকা দেবে। বলা হচ্ছে সালমান-আমির দেবে 3 কোটি আর তুর্কি সরকার দেবে 3 কোটি টাকা। তবে আমরা আপনাকে বলে রাখি যে, এই ধরনের সমস্ত খবর নিছক গুজব। অর্থাৎ এগুলো সবই ফেক নিউজ, যা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হচ্ছে।

screenshot 2022 02 12 at 8.33.57 pm

KoiMoi-র একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, ‘ফ্যাক্টলি’ তার গবেষণায় দাবি করেছে যে তুর্কি সরকার এমন কোনও আনুষ্ঠানিক বিবৃতি জারি করেনি, যাতে বলা হয়েছে যে মুসকান খানকে পুরস্কৃত করা হবে। তুরস্কের ওয়েবসাইটে এবং তুরস্কের নয়াদিল্লি দূতাবাসে এমন কোনো প্রেস বিজ্ঞপ্তি নেই। অন্যদিকে, আমরা যদি সালমান খান এবং আমির খানের কথা বলি, তবে তাদের পক্ষ থেকে কোনও আনুষ্ঠানিক বিবৃতি নেই। বরং হিজাব বিতর্ক নিয়ে এখনো কোনো মন্তব্য করেননি দুই তারকাই।

সম্পর্কিত খবর