এবার হেলমেট পরলেও দিতে হবে ২ হাজার টাকা জরিমানা, চালান থেকে বাঁচতে অবলম্বন করুন এই উপায়

সম্প্রতি ভারতের (India) রাস্তায় দুর্ঘটনায় মৃত্যুর সংখ্যা কমাতে উদ্যোগী হয়েছে কেন্দ্র। একথা তো আমরা সকলেই জানি যে, বাইক-স্কুটারের যাত্রীদের সুরক্ষার জন্য সবথেকে বড় ভরসা হেলমেট। অথচ প্রতিদিনই রাস্তায় চলার সময় আমরা বিভিন্ন রকম ছবি দেখি। চারিদিকে তাকালেই দেখতে পাওয়া যায় অসংখ্য মানুষ বাইক তো চালাচ্ছেন কিন্তু কারো মাথাতেই হেলমেট নেই।

কেউ কেউ আবার পুলিশি জেরা এড়াতে হেলমেট তো পরেছে কিন্তু তার বাস্তবে কোনো কার্যকারিতা নেই। হয় তেবড়ে গেছে নয়তো এতোটাই পুরোনো যে একটা টোকা মারলেই ভেঙে যাবে। এমতাবস্থায় এই জনগণকে কে বোঝাবে যে, হেলমেট আসলে তাদের নিজেদের সুরক্ষার জন্যই পরতে বলা হয়।

তো এবার এই ধরণের জনগণকে রাস্তায় আনতেই নতুন নিয়ম এনেছে সরকার। শুধুমাত্র হেলমেট পরলেই চলবে না। তা যথাযথভাবে পরতে হবে। নয়তো কঠোর জরিমানা করা হবে। প্রসঙ্গত সড়ক দুর্ঘটনা কমাতে বহুদিন ধরেই তৎপর হয়ে উঠেছে সরকার। তবে সম্প্রতি ১৯৯৮ সালের মোটর ভেহিকেলস আইনে নতুন কিছু সংযোজন করা হয়েছে সরকার কর্তৃক।

এই নতুন নিয়ম অনুযায়ী মোটরবাইক চালানোর সময় আপনি যদি হেলমেটের স্ট্রিপ অর্থাৎ বেল্টটি লক না করেন তাহলে ১০০০ থেকে ২০০০ টাকা অবদি জরিমানা দিতে হবে।

মোটর ভেহিকেলস আইন ১৯৯৮ এর ১৯৪ডি ধারা অনুযায়ী, ‘১২৯ ধারায় প্রণীত বিধি লঙ্ঘন করে মোটরসাইকেল চালায় তাকে এক হাজার টাকা জরিমানা করা হবে। এবং তিনমাসের জন্য তাঁর লাইসেন্স বাতিল করা হবে।

bike challan police

হেলমেটে ব্যুরো অফ ইন্ডিয়ান স্ট্যান্ডার্ডস (BIS) সার্টিফিকেশন থাকতে হবে বা আইএসআই (ISI) চিহ্ন থাকা আবশ্যক। এই লোগো না থাকলে 1,000 টাকা জরিমানা হবে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button