প্রতি চার সেকেন্ডে একটি মিসাইল, বিধ্বংসী রকেট সিস্টেম বানাল DRDO! ঘুম উড়বে ভারতের শত্রুদের

বর্তমানে সারা বিশ্বই দেখেছে ভারতের (India) পেশী আস্ফালন। প্রায় ১০০০ বছরের পরাধীনতার গ্লানি কাটিয়ে আবারো নিজের স্বমহিমায় ফিরছে ভারত। দেশের প্রতিটি কোণায় পড়ছে উন্নতির ছাপ। অর্থনৈতিক এবং সামরিক, সমস্ত দিকেই ভারতের শক্তি দেখে বিস্মিত সারাবিশ্ব। আর তারই মাঝে ডিআরডিও (Defence Research and Development Organisation) এবার এমন রকেট লঞ্চার সিস্টেম তৈরি করেছে যা দেখে শত্রুদের বুকে ঢুকেছে আতঙ্ক আর মিত্রদের মধ্যে আলাদা সমীহ আদায় করেছে ভারত।

ভারতের প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা DRDO ভারতের মাথার তাজ। এবার সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় তারা তৈরি করছে বিশেষ ধরনের এক রকেট ব্যবস্থা। জানা যাচ্ছে যে, এই নয়া রকেট সিস্টেম শত্রুদের ধ্বংস করার জন্য প্রতি ৪ সেকেন্ডে একটি করে মিসাইল নিক্ষেপ করতে সক্ষম।

ভগবান পিনাক পাণি অর্থাৎ মহাদেবের ধনুক পিনাক এর থেকে নাম নেওয়া গিয়েছে পিনাক মিসাইল সিস্টেমের। আর প্রকৃত অর্থেই নিজের নামকে জাস্টিফাই করে এক মিসাইল সিস্টেম। শত্রুদের হৃদয়ে ভয় ঢুকিয়ে দিতে জুড়ি নেই এই মিসাইল সিস্টেমের। আর সম্প্রতি DRDO এই সিস্টেমের নয়া ভার্সন Pinaka Mki এবং Pinaka Aerial Denial Munition নামের দুই নয়া রকেটের সফল পরীক্ষণ চালিয়েছে।

পোখরান ফায়ারিং রেঞ্জে এই রকেট সিস্টেমটি ৪৪ সেকেন্ডে ১২ টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করছে। এই নয়া ক্ষেপণাস্ত্রের হানা দেওয়ার পরিসীমা ৭ কিমি থেকে একেবারে ৯০ কিলোমিটার পর্যন্ত। এখনো পর্যন্ত DRDO এই রকেট লঞ্চারের তিনটি ভেরিয়েন্ট তৈরি করেছে। যাহলো MK-1, MK-2 এবং MK-3, যা বিভিন্ন রেঞ্জে আঘাত হানতে পারে।

pinaka multi
The Pinaka 214 MM Multi Barrel Rocket Launcher System passes through the Rajpath during the full dress rehearsal for the Republic Day Parade-2011, in New Delhi on January 23, 2011.

পাকিস্তান এবং চিনের ঘৃণ্য কর্মকাণ্ডের উপযুক্ত জবাব দিতে এই মিসাইল সিস্টেম মোতায়েন করা হবে শত্রু সীমান্তে। জানা যাচ্ছে আপাতত ট্রায়াল চলছে অস্ত্রটির। আগামি ২০২৪ সালের মধ্যেই এই ক্ষেপণাস্ত্রের একটি রেজিমেন্ট শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে ভারতের।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button