‘প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ‍্যায় ধূর্ত!” বাংলা ইন্ডাস্ট্রিকে নিয়ে একের পর এক বোমা ফাটান বিপ্লব চ্যাটার্জি

অভিনেতা বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়কে (Biplab Chatterjee) কে না চেনে। তবে বাংলা (Bengali) সিনেমার (Film) এই বিখ্যাত খলনায়ক তার স্বভাবের কারণে অনেকের যাচ্ছে বাস্তব জীবনেও খলনায়ক হয়ে ওঠেছেন। আসলে তার স্বভাব হলো স্পষ্ট কথা স্পষ্ট ভাবে বলা, আর সেইজন্য তিনি মোটেই অন্যায়ের সাথে আপোষ করেননা। এছাড়া দীর্ঘদিন বাংলা সিনেমায় খলনায়কের চরিত্রে অভিনয় করে তার ভাবমূর্তিও কিছুটা কাঠখোট্টা হয়ে গিয়েছে। কিন্তু তাকে দেখে বোঝার উপায় নেই যে তিনি একেবারেই মাটির মানুষ।

প্রবীণ এই অভিনেতা একবার এসেছিলেন জি বাংলার জনপ্রিয় শো ‘অপুর সংসারে’, আর সেখানেই একের পর এক বোমা ফাটিয়েছিলেন তিনি! তার একের পর এক জ্বালাময়ী মন্তব্যে ইন্ডাস্ট্রি জুড়ে শুরু হয় আলোড়ন। সঞ্চালকের ভূমিকায় বসে থাকা শাশ্বত চট্টোপাধ্যায় তাকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন যে, দীপক দা (চিরঞ্জিৎ চক্রবর্তী), তাপস দা (তাপস পাল) এবং প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ‍্যায় (Prosenjit Chatterjee) সম্পর্কে কিছু বলতে। আর তিনি যা বলেছিলেন সেটা বোধহয় এখনো ভোলেননি এই অভিনেতারা।

প্রশ্নের সাথে সাথেই তৎক্ষণাৎ বিপ্লব চট্টোপাধ্যায় উত্তর দেন যে, দীপক অত‍্যন্ত পাকা, তাপস গর্দভ আর বুম্বা ধূর্ত। আর এই উত্তর শুনে দর্শকদের যে কী হাল হয়েছিল সে বোঝার আগেই সঞ্চালকের আসনে থাকা শাশ্বতর অবস্থা খারাপ হয়ে যায়! এবার এখানেই শেষ করেননি তিনি, তার মতে এরা কেউই ভালো অভিনেতা নন। তারা কেউই নিজদের ব্যথা বেদনা দিয়ে চরিত্র ফুটিয়ে তুলতে পারেননি। এছাড়া অগুন্তি ছবিতে খলনায়কের চরিত্রে অভিনয় করা বিপ্লব চ্যাটার্জী জানান যে তাকে খলনায়ক হতে বাধ্য করা হয়েছিল। শুধু তাই নয়, তার অভিনয় দেখে একবার কি হয়েছিল সেও জানান তিনি।

biplab chatterjee s

বোলপুরের শুটিং করতে যাওয়ার কথা তুলে ধরেন তিনি। তারা যে হোটেলে উঠেছিলেন সেখানে কিছু ট্যুরিস্ট পরিবারও ছিল। সেরকমই এক পরিবারের মেয়ে বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়কে দেখে পালাতে গিয়ে নাকি পা ভেঙে ফেলেন। পরে অবশ্য অভিনেতা ওই পরিবারকে জিজ্ঞাসা করেন যে, মেয়ে কিসে পড়ে? উত্তরে তারা আর্ট কলেজে পড়ে শুনে বিপ্লব চট্টোপাধ্যায় সেই মেয়েকে শোকেসে সাজিয়ে রাখার পরামর্শ দিয়ে এসেছিলেন!

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button