আর লাইন পারাপারের সময় ঘটবে না দুর্ঘটনা, সিগন্যাল সমস্যায় ভুগবে না ট্রেন! বড় উদ্যোগ রেলের

রেল (Indian Railways) ব্যবস্থাকে ভারতীয়দের লাইফলাইন বললেও অত্যুক্তি হবেনা। কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী যাওয়ার জন্য এরচেয়ে সস্তা আর সুবিধাজনক আর কীইবা হতে পারে? কিন্তু সমস্ত সুযোগ-সুবিধার মধ্যে আমাদের দেশে রেল দুর্ঘটনা নতুন নয়। আর মোট দুর্ঘটনার ৪০ শতাংশই ঘটে রেল লাইন পারাপার করতে গিয়ে। শুনতে অবিশ্বাস্য লাগলেও পরিসংখ্যান এটাই বলছে। এবার এই বিষয়টি এড়াতেই নতুন পদক্ষেপ নিলো ভারতীয় রেল।

সম্প্রতি DFC-র এমডি আর কে জৈন এই বিষয়ে একটি বিবৃতি দিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, রেল দুর্ঘটনা এড়াতে বেশ কিছু নতুন পদক্ষেপ নিয়েছে ভারতীয় রেল। তার কথা থেকেই জানা গেছে যে, ইতিমধ্যেই ৭০০ টি আন্ডারপাস এবং ৩০০টি ওভার ব্রিজ নির্মাণের কাজ চলছে। ৫৫০টি আন্ডারপাস ইতিমধ্যেই তৈরি করা হয়েছে।

পাশাপাশি আরও ৪৬ টি ক্রসিং চিহ্নিত করা হয়েছে এবং খুব শীঘ্রই ফ্লাইওভারের কাজ শুরু হবে সেখানে। সত্যি বলতে যাত্রীদের সুবিধার্থে কোনোকিছুরই কমতি রাখতে চায়না ভারতীয় রেল। আর এই কারণেই নিয়ে আসে নানাবিধ প্রকল্প। আর সাম্প্রতিক যে প্রকল্পটি নেওয়া হয়েছে তাতে ভারতীয় রেলকে সম্পূর্ণ ‘দুর্ঘটনামুক্ত’ হিসেবে গড়ে তুলতে চাইছেন ইঞ্জিনিয়াররা।

আর সেই কারণেই বিপুল পরিমাণে ওভারব্রিজ ও আন্ডারপাস নির্মাণ কাজে হাত লাগিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ। এতে যে শুধু যাত্রী সুরক্ষা বাড়বে তাই নয়, পাশাপাশি বৃদ্ধি পাবে রেলের গতিবেগও অর্থাৎ বাঁচবে সময়ও। ফ্লাইওভার এবং আন্ডারপাস নির্মাণের কাজ শেষ হলে পণ্যবাহী ট্রেনগুলি কমপক্ষে ১০০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা গতিবেগে ছুটতে পারবে।

সূত্রের খবর, পাঞ্জাবের লুধিয়ানা এবং পশ্চিমবঙ্গের ডানকুনি পর্যন্ত এই পূর্ব করিডোরটি প্রায় ১,৮৭৫ কিমি দীর্ঘ। এদিকে উত্তরপ্রদেশের দাদরি থেকে মুম্বইয়ের নিকটে জওহরলাল নেহরু পোর্ট ট্রাস্ট পর্যন্ত লম্বা পশ্চিম করিডোরটির দৈর্ঘ্য প্রায় ১,৫০৬ কিলোমিটার দীর্ঘ। সূত্রের খবর, এই রুটের ৫০ শতাংশেরও বেশি কাজ ইতিমধ্যেই শেষ হয়ে গেছে। ২০২৩ এর শেষের দিকে ৯০ শতাংশ কাজ শেষ হয়ে যাবে বলে খবর।

rail train

এইমুহুর্তে রেল কর্তৃপক্ষের একটাই উদ্দেশ্য, সেটা হলো যানজট কমানো এবং দূর্ঘটনা এড়ানো। সম্প্রতি যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে তাতে এই দুটি লক্ষ্যই সফল হবে বলে ধারণা বিশেষজ্ঞদের। প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, কেবলমাত্র যাত্রী সুরক্ষার জন্য ১৮,০০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে ডিএফসি।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button