বাড়ির পিছনের বাগান খুঁড়তেই বেরিয়ে এল আস্ত এক ডাইনোসর, ঘটনায় তাজ্জব সারাবিশ্ব

বাড়ির পিছনে ছোট একখানা বাগান রয়েছে। সেখানে নির্মাণ করার কথা ভাবেন একজন। আর সেই মত শুরু হয় কাজ। কিন্তু নির্মাণের কাজ শুরু হওয়ার পর এমন এক জিনিস নজরে আসে যা দেখে চমকে যান উপস্থিত সবাই। শুধু তাই না, সারাবিশ্বেই ছড়িয়ে পড়ে এই খবর।

কেঁচো খুঁড়তে কেউটে বেরিয়ে আসার কথা আমরা হামেশাই শুনে থাকি, কিন্ত এক্ষেত্রে মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে এল আস্ত একখানা ডাইনোসর (dinosaur) ! আসলে নির্মাণ কাজের জন্য কিছুটা মাটি খোঁড়া হতেই শ্রমিকদের নজরে পড়ে হাড়ের মত দেখতে জিনিস।

একেবারে শক্ত পাথরের মত ঠেকে সেটি। তার আশেপাশের অঞ্চল জুড়ে মাটি কাটা হতেই যা বেরিয়ে আসে তা চমকে দেওয়ার মতোই। প্রথমে কিছুক্ষণ সেরকম সন্দেহ না হলেও আরো আস্ত কয়েকটি হাড়গোড় টাইপের বেরিয়ে আসতেই মালিককে ডেকে নিয়ে আসে শ্রমিকরা। আর তারপরই সমস্ত সত্যি জানা যায়।

ঘটনাটি সুদূর ইউরোপের পর্তুগালের। সেখানের পোমবাল শহরে ঘটে এই অদ্ভুত ঘটনা। বাড়ির মালিকও ঠিক বুঝতে পারেননি। তারা খবর দেন লিসবন বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেখান থেকেই বিশেষজ্ঞরা এসে হাজির হন ওই ব্যক্তির বাড়িতে।

পরীক্ষা নিরীক্ষা চালানোর জন্য অতি সন্তর্পণে মাটি কাটার কাজ সম্পুর্ন করা হয়। এরপর মাটি বেশ কিছুটা কাটার পর যা আবিষ্কার হয় সেটা চমকে যাওয়ার মতোই। চারিদিক খোঁড়াখুঁড়ি করলে সেখান থেকে বের হয় আস্ত এক ডাইনোসরের কঙ্কাল! আপাতত সেটি জীবাশ্মে পরিণত হয়েছে।

ইতিমধ্যে তাই দেখতে ভিড় জমে যায়। ডাইনোসরের জীবাশ্ম দেখে গবেষকেরা জানান যে যে ডাইনোসরের কঙ্কালটি অতিকায় চেহারার। যদিও এক্ষুনি বলা যাচ্ছে না কোন প্রজাতির ডাইনোসর পাওয়া গিয়েছে সেখানে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button