একাধিক জেলায় বৃষ্টি, দক্ষিণবঙ্গে আরও নামবে তাপমাত্রা! শীত নিয়ে হাড়কাঁপানো পূর্বাভাস

জানুয়ারি মাসের শীত নিয়ে রাজ্যবাসীর অভিযোগ মিটে গিয়েছে। টানা তিন দিনের হাড় কাঁপানো ঠান্ডায় একপ্রকার জুবুথুবু অবস্থা হয়ে গিয়েছে সকলের। এদিকে আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাসকে সত্যি করে সংক্রান্তির (Makar Sankranti) আগেই নেমেছে বাংলার পারদ হু হু করে কমছে ।

এদিকে ঠান্ডার পাশাপাশি দাপট দেখাচ্ছে ঘন কুয়াশাও। ঠান্ডা, কুয়াশা…এই দুই মিলিয়ে বাংলার মানুষের অবস্থা এখন একপ্রকার কাহিল। আগামী দুদিন রাত ও দিনের তাপমাত্রার কোনোরকম হেরফের হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে হাওয়া অফিসের বিজ্ঞানীরা। এদিকে আজ মকর সংক্রান্তি। সকাল থেকেই কলকাতা (Kolkata) সহ দক্ষিণবঙ্গের (South Bengal) জেলাগুলিতে ঘন কুয়াশার দাপট চলছে।

   

ঘন কুয়াশার কারণে ব্যাহত হয়েছে লঞ্চ পরিষেবা থেকে শুরু করে বিমান পরিষেবা। বাতিল হয়ে গিয়েছে বহু বিমান। এদিকে আজও দক্ষিণবঙ্গে ঠান্ডা দাপট দেখাচ্ছে। পুরুলিয়া থেকে শুরু করে বাঁকুড়ার তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রির নীচে নেমে গিয়েছে। শৈত্যপ্রবাহের সতর্কতাও অবধি জারি করা হয়েছে। এমনকি সকাল থেকেই আকাশের মুখ ভার। ভোরের দিকে ছিটেফোঁটা বৃষ্টিও হয়েছে কলকাতায়।

কমবে ঠান্ডা? আবহাওয়ার ভোলবদল নিয়ে বড় আপডেট দিল মৌসম ভবন । বিজ্ঞানীরা বলছেন, শনি, রবির পরে আজ সোমবারও শহরের পারদ স্বাভাবিকের থেকে কমই আছে। আজ কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৪.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। হাওয়া অফিস বলছে,  রাজ্যে আরও দুদিন জাঁকিয়ে শীত থাকবে । তবে নতুন করে আর পারা পতনের সম্ভাবনা নেই এই স্পেলে। মঙ্গলবার থেকে ক্রমশ বাড়বে তাপমাত্রা। বুধ ও বৃহস্পতিবার ২ থেকে ৩ ডিগ্রি তাপমাত্রা বেড়ে যেতে পারে।

cold wb

এদিকে আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, সোমবার দক্ষিণবঙ্গের কোথাও বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। তবে, মঙ্গলবার দক্ষিণ চব্বিশ পরগণা এবং পূর্ব মেদিনীপুরে বৃষ্টির হতে পারে৷ এরপর বুধবার দুই চব্বিশ পরগণা, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, কলকাতা, হাওড়া, হুগলি, এবং নদিয়া জেলায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। এরপর বৃহস্পতিবার দক্ষিণ বঙ্গের প্রায় সব জেলাতেই বৃষ্টির পূর্বাভাস। এখন নিশ্চিই ভাবছেন যে উত্তরবঙ্গের পরিস্থিতি কেমন থাকবে? এই বিষয়ে হাওয়া অফিস জানাচ্ছে, দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার জেলায় বুধবার হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

সম্পর্কিত খবর