দিঘার প্রমোদতরী নিয়ে দুঃসংবাদ! প্রকাশ্যে এল বিরাট খারাপ খবর, মাটি পর্যটকদের আনন্দ

বাংলার কোণায় কোণায় এমন কিছু জায়গা রয়েছে যেখানে মানুষ অনায়াসেই ঘুরতে যেতে পারেন। বলা ভালো, এখানে সকলের জন্যই কিছু না কিছু আছে। যারা পাহাড় ভালোবাসেন তাঁদের জন্য রয়েছে দার্জিলিং (Darjeeling), কালিম্পং (Kalimpong), সহ উত্তরবঙ্গের (North Bengal) বহু জায়গা। আবার যারা সমুদ্রপ্রেমী তাঁদের জন্য রয়েছে দিঘা, গঙ্গাসাগর থেকে শুরু করে বকখালি ইত্যাদি। এখন শীতের মরসুম চলছে। আর এই শীতের মরসুমে সব জায়গাতেই যেন মানুষের ভিড় উপচে পড়েছে।

এই ভিড়ের হাত থেকে কিন্তু রেহাই পায়নি সমুদ্র নগরী দিঘাও (Digha)। শীত হোক বা বর্ষা বা গ্রীষ্মকাল…বছরের যে কোনও সময়ে মানুষ এই দিঘায় ঘুরতে আসেন। এখন ঠাসা ভিড় সেখানে। কেউ এসেছেন পরিবারের সঙ্গে তো কেউ কেউ এসেছেন নিজের মনের মানুষের সঙ্গে। তবে আপনিও কি এই সময়ে দিঘা ঘুরতে যাচ্ছেন? আপনিও কি বিলাসবহুল ক্রুজে ওঠার ইচ্ছা নিয়ে দিঘায় ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যান করছেন? তাহলে আপনার জন্য রইল খারাপ খবর।

   

কারণ এখন প্রমোদতরীতে রাইড একপ্রকার বিশ বাঁও জলে। পূর্ব মেদিনীপুর (Purba Medinipur) জেলার জনপ্রিয় সৈকত শহর দিঘায় শীঘ্রই পর্যটকদের জন্য ক্রিক ক্রুজ বা এক বিলাসবহুল জলযান চালু হতে চলেছে বলে বেশ কিছুদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল। ক্রুজটির নাম শোনা গিয়েছিল হবে ‘এমভি নিবেদিতা’। এই ক্রুজে  ৮০ জন থাকতে পারবেন এমনকি এই ক্রুসে বিশেষ পার্টিরও আয়োজন করা যাবে।

এটি ওল্ড দিঘা থেকে মেরিন ড্রাইভ, শঙ্করপুর, মন্দারমণির পাশাপাশি খাড়ি এলাকাগুলিতে ঘুরবে এই ক্রুজ বলেও শোনা গিয়েছিল। সেই মতো বেশ কিছুদিন ধরে দিঘার বুকে এই ক্রুজের দেখাও মিলেছিল। তবে পর্যটকরা এই নিয়ে বড় ধাক্কা খেতে চলেছেন। কারণ জেটি পর্যন্ত পৌঁছনোর রাস্তা যথেষ্ট বিপজ্জনক বলে অভিযোগ। জেটিও জীর্ণ। ফলে এখন এই ক্রুজ যাত্রা প্রশ্নের মুখে।

digha

প্রশাসন সূত্রে খবর, ন্যায়কালি মন্দির পর্যন্ত রাস্তা পাকা। সেখান থেকে মোরামের রাস্তা সেতুর নীচ অবধি এসে থেমেছে। তারপর মাটির রাস্তা গিয়েছে লোহার জেটি পর্যন্ত। আর সেই কাঁচা রাস্তার দশা খুবই শোচনীয়। সেখানে যাওয়াই বিপজ্জনক। রাস্তা গিয়েছে সেচ দফতরের বাঁধের উপর দিয়ে। ফলে সেই রাস্তা রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব দফতরের। ফলে দ্রুত এখন মেরামতের কাজ জরুরী নইলে সমস্যায় পড়বেন পর্যটকরা।

এই বিষয়ে সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে পূর্ব মেদিনীপুরের জেলাশাসক তথা দিঘা-শঙ্করপুর উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান তনবীর আফজল জানিয়েছেন, ‘‘নতুন করে জেটি শনাক্তকরণ চলছে। তারপর দিঘায় প্রমোদতরী চালু করা হবে।’’

সম্পর্কিত খবর