এবার শুধু সমুদ্রে স্নানই নয়, দিঘায় দেখতে পারবেন মিসাইল উৎক্ষেপণও! উদ্যোগ DRDO-র

যত সময় এগোচ্ছে ভারত (India) ততই যেন বিভিন্ন ক্ষেত্রে আরও শক্তিশালী হয়ে উঠছে। যেমন প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রেই ধরা যাক, সে একের পর এক মিসাইল বানিয়েই হোক কিংবা বিদেশ থেকে আমদানি করে… শত্রুদের ঘুম উড়িয়ে দিতে বদ্ধ পরিকর ভারত। বর্তমান সময়ে এখন শত্রু দেশগুলি ভারতের দিকে চোখ তুলে তাকানোর আগে দশবার ভাববে।

এরই মাঝে এবার বড় সিদ্ধান্ত নিল ডিআরডিও (Defence Research and Development Organisation)। ওড়িশা উপকূলের পর এবার DRDO-র নজরে বাংলার উপকূলীয় এলাকা। এতদিন যে কোন মিসাইল উৎক্ষেপণের জন্য ওড়িশা উপকূলকেই বেছে নেওয়া হতো DRDO-র তরফে। কিন্তু এবার শোনা যাচ্ছে পূর্ব মেদিনীপুর (Purba Medinipur) থেকে মিসাইল উৎক্ষেপণ করতে চলেছে ডিআরডিও। হ্যাঁ শুনতে অবাক লাগলো এটাই সত্যি।

   

জানা গিয়েছে, খুব শীঘ্রই পূর্ব মেদিনীপুরের উপকূল থেকে মিসাইল ছোঁড়া হবে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ফেব্রুয়ারি বা জানুয়ারি মাসেই এই কাজ করতে পারে ডিফেন্স রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন। কাঁথির (Contai) জুনপুট (Junput) উপকূলে তৈরি হওয়া ঘাঁটি থেকে মিসাইল ছোঁড়া হবে।

জেলাশাসক জানিয়েছে, এই ঘাঁটি তৈরি করার জন্য ডিআরডিও-কে জমি অবধি দিয়েছে রাজ্য সরকার। এই জুনপুট থেকে পরীক্ষামূলকভাবে একটা রকেট ছোঁড়া হবে। অন্যদিকে ওড়িশার বালাসোর থেকেও একটা রকেট ছোঁড়া হবে। এরপর দুটিকে ইন্টারসেপ্ট হবে।

missile

কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা এজেন্সি তথা কোস্ট গার্ডের তরফে হলদিয়ায় গিয়েছিলেন আইজি ইকবাল সিং চৌহান। এই প্রসঙ্গে তিনি সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জানিয়েছেন, রাজ্যে আরও দুটি র‌্যাডার স্টেশন গড়ছে কোস্টগার্ড। তার মধ্যে র‍্যাডার স্টেশন হবে জুনপুটে। জেলাশাসক জানান, উপকূলের নিরাপত্তায় কোস্টগার্ড আরও নজরদারি বাড়াচ্ছে। র‌্যাডার স্টেশন তৈরির জন্য কোস্টগার্ড জমি চেয়েছিল বলেও জানিয়েছেন তিনি।

সম্পর্কিত খবর