বাজার শেষ আম্বানির, এবার এই ব্যবসায় প্রবেশ করল টাটা গ্রুপ! কিনে ফেলল দুটি বড় কোম্পানি

কোটিপতি ব্যবসায়ী এবং জনহিতৈষী রতন টাটা (Ratan Tata) টাটা গ্রুপের (Tata Group) চেয়ারম্যান থাকাকালীন বেশ কয়েকটি টাটা সংস্থার নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। এটা তো সকলেই জানেন নিশ্চয়ই। রতন টাটার নেতৃত্বে, গ্রুপটি প্রতিযোগিতামূলক বাজারে সাফল্যের পর সাফল্য অর্জন করেছে। তবে এখনও কিন্তু এই সাফল্য কোনওরকম ভাঁটা পড়েনি, বরং এর বিস্তার আরও হয়েই চলেছে।

টাটা কনজ্যুমার প্রোডাক্টস লিমিটেড তার ব্যবসা শক্তিশালী করতে বড় পদক্ষেপ নিল। ক্যাপিটাল ফুডস এবং ফ্যাব ইন্ডিয়াকে অধিগ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে টাটা গ্রুপ। ইতিমধ্যে টাটা গ্রুপ উভয় প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করেছে। এই চুক্তি সম্পন্ন হওয়ার পরে, এই দুটি সংস্থা টাটা গ্রুপের অংশ হয়ে যাবে।

   

Tata Consumer ঘোষণা করেছে যে তারা ‘চিং’স সিক্রেট’ এবং ‘স্মিথ অ্যান্ড জোন্স’-এর মতো ব্র্যান্ডের মালিকানাধীন ক্যাপিটাল ফুডসকে ৫,১০০ কোটি টাকায় কিনতে চলেছে। টাটা কনজ্যুমার এর ১০০ শতাংশ শেয়ার কিনবে, যার জন্য একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ ছাড়া ফ্যাব ইন্ডিয়া ব্র্যান্ডের অর্গানিক ইন্ডিয়া কোম্পানিকে ১,৯০০ কোটি টাকায় কিনবে টাটা। এই সংস্থাটি প্যাকেজযুক্ত জৈব চা, ভেষজ পণ্য এবং অন্যান্য স্বাস্থ্য সম্পর্কিত পণ্য বিক্রি করে।

ক্যাপিটাল ফুডস কেনার বিষয়ে টাটা কনজিউমার জানিয়েছে, আগামী তিন বছরের মধ্যে ৭৫ শতাংশ ইক্যুইটি শেয়ার হোল্ডিং এবং বাকি ২৫ শতাংশ শেয়ার হোল্ডিং অধিগ্রহণ করা হবে। এই সংস্থাটি চিং’স সিক্রেট ব্র্যান্ড নামে স্যুপগুলিতে চাটনি, মশলা, নুডলস বিক্রি করে। টাটা  কোম্পানি জানিয়েছে, ক্যাপিটাল ফুডসকে অধিগ্রহণ করা হচ্ছে তাদের ব্যবসাকে নতুন মাত্রা দিতে এবং বাজারে চাহিদা বাড়াতে। টাটা কনজিউমার জানিয়েছে, ২০২০-২৪ অর্থবছরে ক্যাপিটাল ফুডসের আনুমানিক টার্নওভার প্রায় ৭৫০ থেকে ৭৭০ কোটি টাকা এবং অর্গানিক ইন্ডিয়ার আনুমানিক টার্নওভার প্রায় ৩৬০ থেকে ৩৭০ কোটি টাকা।

ratan tata

টাটার সংস্থা দুটি সংস্থাকেই ৭০০০ কোটি টাকায় কিনবে। টাটা কনজিউমারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, খুব শীঘ্রই এই চুক্তি সম্পন্ন হতে পারে। ক্যাপিটাল ফুডসের প্রতিষ্ঠাতা অজয় গুপ্তা বলেন, “টাটা গ্রুপে যোগ দিতে পেরে আমরা উচ্ছ্বসিত।“ Fab India-র এমডি উইলিয়াম বিসেল বলেন, ‘টাটা গ্রুপ ১৫০ বছরেরও বেশি সময় ধরে রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে আমরাও এতে যোগ দিতে পেরে খুবই উচ্ছ্বসিত।“  শুক্রবার টাটা কনজিউমার শেয়ার ৩.৫ শতাংশ বেড়ে ১,১৫৮.৭ টাকায় লেনদেন হয়েছে। বলে দিই, টাটা গ্রুপের এই সিদ্ধান্তের কারণে বিপাকে পড়তে চলেছেন মুকেশ আম্বানি। কারণ আম্বানির রিলায়েন্সও ধীরে ধীরে এই ব্যবসায় প্রবেশ করছে। এর ফলে তারা বিশাল প্রতিযোগিতায় পড়বে।

সম্পর্কিত খবর