এবার জাপানেও চলবে বন্দে ভারত! বিদেশে রফতানির তোরজোড় শুরু, বড় পদক্ষেপ রেলের

যত সময় এগোচ্ছে ততই বন্দে ভারত এক্সপ্রেস (Vande Bharat Express) ট্রেন নিয়ে ব্যাপক উত্তেজনার সৃষ্টি হচ্ছে। ভারতীয় রেলও (Indian Railways) ঢেলে সাজাচ্ছে এই ট্রেনকে। বলা ভালো, সকলের মধ্যেই ট্রেনের জনপ্রিয়তা হু হু করে বাড়ছে। হাইস্পিড এবং চমৎকার সুবিধায় সজ্জিত, এই ট্রেনটি কেবল ভারতেই নয়, বিদেশীদের মধ্যেও জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। ভারতে বর্তমানে ৮২টি বন্দে ভারত এক্সপ্রেস ট্রেন চলছে। রেলমন্ত্রী জানান, বন্দে ভারত ট্রেনের গতি বাড়ানোর কাজও চলছে। সরকার এই সেমি হাইস্পিড ট্রেন রফতানিরও পরিকল্পনা রয়েছে। এমনটাই জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব। তিনি বলেন, বন্দে ভারত এক্সপ্রেস কেনার জন্য অনেক দেশ অনুসন্ধান করেছে এবং আগামী কয়েক বছরের মধ্যে ভারত এই দুর্দান্ত ট্রেনটি রফতানি শুরু করবে।

ভারত সরকার বন্দে ভারত এক্সপ্রেস ট্রেনের ব্যাপক প্রচার করছে। এই ট্রেনের উচ্চ গতি এবং দুর্দান্ত সুবিধাগুলি কেবল ভারতেই নয়, বিদেশেও পছন্দ করা হচ্ছে। রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব জানিয়েছেন, সরকার এই সেমি হাইস্পিড ট্রেন রফতানির পরিকল্পনা করছে। তার মতে, অনেক দেশ বন্দে ভারত এক্সপ্রেস কেনার আগ্রহ প্রকাশ করেছে এবং আগামী কয়েক বছরের মধ্যে ভারত এই দুর্দান্ত ট্রেনটি রফতানি শুরু করবে।

   

এক রিপোর্ট অনুসারে, রেলমন্ত্রী একটি অনুষ্ঠানে জানিয়েছেন যে রেল মন্ত্রক তার ওয়ার্কশপগুলিকে দেশীয় নকশা এবং দক্ষতার সাথে বন্দে ভারত ট্রেনের উপাদানগুলি তৈরি করতে সক্ষম করেছে, যা সরকারী ও বেসরকারী খাতের ইউনিট ছাড়াও। কিন্তু আমরা এই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেছি বিজয়ী আত্মসমর্পণের ঊর্ধ্বে।

অশ্বিনী বৈষ্ণবের দাবি, আগামী কয়েক বছরের মধ্যে ভারত বন্দে ভারত এক্সপ্রেস ট্রেন অন্য দেশে রফতানি করতে পারবে। ভারতে বর্তমানে ৮২টি বন্দে ভারত এক্সপ্রেস ট্রেন রয়েছে এবং এই ট্রেনগুলির গতি বাড়ানোর কাজও চলছে বলে জানান রেলমন্ত্রী। নয়াদিল্লি-মুম্বই এবং নয়াদিল্লি-হাওড়া রুটে ঘণ্টায় ১৬০ কিলোমিটার বেগে বন্দে ভারত ট্রেন চালানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

অশ্বিনী বৈষ্ণব বলেন, এনডিএ সরকার আসার পর থেকে ভারতে নতুন রেলপথ নির্মাণের কাজ গতি পেয়েছে। ২০০৪ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত প্রতিদিন গড়ে চার কিলোমিটার রেলপথ নির্মাণ করা হতো, এখন সেই গতি বাড়িয়ে প্রতিদিন ১৫ কিলোমিটার করা হচ্ছে। গত ১০ বছরে ৪১ হাজার কিলোমিটার রেল নেটওয়ার্ক বৈদ্যুতিকীকরণ করা হয়েছে। অশ্বিনী বৈষ্ণব জানিয়েছেন, ২০০৪ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত রেলে বিনিয়োগ ছিল ১৫,৬৭৪ হাজার কোটি টাকা, ২০২৪-২৫ অর্থবর্ষে মূলধন ছিল ২,৫২,০০০ কোটি টাকা।

সম্পর্কিত খবর