DA দূর অস্ত! কর্মীদের বড় ঝটকা দিয়ে দিল পশ্চিমবঙ্গ সরকার, আল্টিমেটাম খোদ মমতার

দরজায় একপ্রকার কড়া নাড়ছে লোকসভা ভোটে (Lok Sabha Election)। এদিকে এই বৃহত্তর ভোটের আগে চরম হুঁশিয়ারি দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। কাজে গাফিলতি দেখলে রাজ্য সরকারি আধিকারিক ও কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিল পশ্চিমবঙ্গ সরকার (Government Of West Bengal)।

জেলাশাসকদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী জানান, সার্ভিস রুল প্রয়োগ করে যারা গাফিলতি করেছেন সেইসকল কর্মীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নবান্নে সূত্রে খবর, মুখ্যমন্ত্রী সরকারি কাজে গাফিলতির বিষয়টি উত্থাপন করেন এবং বলেন, প্রয়োজনে তিনি সেন্ট্রাল সিভিল সার্ভিসেস (সিসিএস) পেনশন বিধিমালার মৌলিক বিধি (এফআর) ৫৬(জে)/(১), বিধি ৪৮ প্রয়োগ করে সরকারি আধিকারিক ও কর্মচারীদের ‘বাধ্যতামূলক অবসর’ পাঠাতে দ্বিধা করবেন না।

   

এদিকে প্রশাসন সূত্রের খবর, ৯৬ জন আধিকারিককে বাধ্যতামূলক অবসর দেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় নিয়ম প্রয়োগ করেছে সরকার।  পঞ্চায়েত স্তরে দুর্নীতির মামলা রুখতে জেলাশাসকদের সজাগ থাকার নির্দেশ দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  বৈঠকে উপস্থিত এক আধিকারিক বলেন, পঞ্চায়েতের নিচুতম স্তরে যদি কোনও দুর্নীতি হয়, তাহলে তার দায় রাজ্য সরকার কেন নেবে।

এদিকে, মহার্ঘ ভাতা (Dearness allowance) বৃদ্ধির দাবিতে আন্দোলনরত রাজ্য সরকারি কর্মচারী সংগঠনের একাংশ মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকির সমালোচনা করেছে। রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সংগঠন স্টিয়ারিং কমিটির নেতা সংকেত চক্রবর্তী বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী সম্প্রতি বলেছেন যে তাঁর সরকার সমস্ত কাজ শেষ করেছে। সরকারি কর্মচারীরা কাজ না করলে সেই কাজ শেষ হবে কী করে? তার বক্তব্য স্ববিরোধী।“

mamata nabanna

DA ইস্যুতে বিক্ষোভ যেন থামার নামই নিচ্ছে না বাংলায় (West Bengal)। আগামী ১৯ জানুয়ারি নতুন করে মহা মিছিলের ডাক দিয়েছে সংগ্রামী যৌথ মঞ্চ। সরকারী আধিকারিকদের দাবি, মুখ্যমন্ত্রী যেন তাঁদের সঙ্গে দেখা করে এবং সমস্যার সমাধান করে। আর যদি সেটা না হয় তাহলে আমরণ অনশনের হুমকি অবধি দেওয়া হয়েছে।

সম্পর্কিত খবর