কতজন ভারতীয় সেনা আছেন মলদ্বীপে, তাঁদের কাজই বা কী? জানলে অবাক হবেন

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi) ও ভারত (India) সম্পর্কে মলদ্বীপের (Maldives) মন্ত্রীদের অবমাননাকর মন্তব্যের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় এখনও #bycottmaldives ট্রেন্ড করছে। একসময় ভারতের অনেক বড় বড় নাম ছুটি কাটাতে এই মলদ্বীপে ছুটে যেতেন, এখন সেই জায়গা একপ্রকার খাঁ খাঁ করছে। কোটি কোটি টাকার পর্যটন ব্যবসা মার খাচ্ছে প্রতিদিন।

একপ্রকার সকলেই যেন মলদ্বীপের মতো ছোট দ্বীপরাষ্ট্রটির থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন।  যদিও এসবের মাঝে মলদ্বীপের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুইজ্জু (Mohamed Muizzu) চীন (China) থেকে ফেরার পরই তার যেন আসল রং দেখাতে শুরু করেছেন। অন্তত তেমনই মনে করছে বিশিষ্ট মহল। মলদ্বীপে ফিরে আসার সঙ্গে সঙ্গেই তিনি আবারও ভারতকে সেনা প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছেন। তবে এবার বিষয়টি খুবই গুরুতর হয়ে উঠেছে, কারণ মুইজ্জু এখন এ বিষয়ে একটি সময়সীমা বেঁধে দিয়েছেন।

   

মলদ্বীপ বলেছে, ভারতীয় সেনাদের (Indian Army) ১৫ মার্চের মধ্যে দেশ ছাড়তে হবে। এদিকে আন্তর্জাতিক মহল মনে করছে, শি জিনপিংয়ের সঙ্গে বৈঠকের পর থেকে মুইজ্জুর মনোভাব পাল্টে গেছে। মলদ্বীপের প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের পাবলিক পলিসি সেক্রেটারি আবদুল্লাহ নাজিম ইব্রাহিম বলেন, ‘ভারতীয় সেনারা মলদ্বীপে থাকতে পারবেন না। এটা প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুইজ্জু এবং এই প্রশাসনের নীতি। মলদ্বীপে বর্তমানে ৮৮ জন ভারতীয় সেনা সদস্য রয়েছেন।‘

উল্লেখ্য, এটাই প্রথম নয়, প্রায় দুই মাস আগে প্রেসিডেন্ট মুইজ্জু ভারতীয় সেনা প্রত্যাহারের কথা বলেছিলেন।  মালদ্বীপ ও ভারত সেনা প্রত্যাহার নিয়ে আলোচনার জন্য একটি উচ্চ পর্যায়ের কোর গ্রুপ গঠন করেছে। রবিবার মালেতে বিদেশ মন্ত্রকের সদর দপ্তরে এই গোষ্ঠীর প্রথম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকে ভারতীয় হাইকমিশনার মুনু মহাওয়ারও উপস্থিত ছিলেন। নাজিম বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বৈঠকের আলোচ্য সূচিতে ১৫ মার্চের মধ্যে সেনা প্রত্যাহারের অনুরোধ অন্তর্ভুক্ত ছিল। মালদ্বীপ থেকে ভারতীয় সেনা প্রত্যাহার মুইজ্জুর একটি গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি ছিল।

army maldives

পাঁচ দিনের চীন সফর শেষে দেশে ফেরার পর শনিবার ভারতের বিরুদ্ধে কড়া বিবৃতি দিয়েছেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুয়াইজ্জু। তিনি জানান, “মলদ্বীপ ছোট দেশ হতে পারে, কিন্তু এটি কাউকে আমাদের হুমকি দেওয়ার লাইসেন্স দেয় না। এই মহাসাগরে আমাদের ছোট ছোট দ্বীপ রয়েছে, কিন্তু আমাদের ৯০০,০০০ বর্গ কিলোমিটারের একটি বিশাল এক্সক্লুসিভ ইকোনমিক জোন রয়েছে। মালদ্বীপ এই মহাসাগরের বৃহত্তম অংশ ধারণকারী দেশগুলির মধ্যে একটি।“ মলদ্বীপের মন্ত্রীরা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে অবমাননাকর মন্তব্য করার পর মুইজ্জু এই মন্তব্য করেন। এতে দুই দেশের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক একপ্রকার তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে।

মলদ্বীপে ভারতীয় সেনার কাজ কী?

ভারতীয় সেনারা মলদ্বীপে গিয়ে সেখানকার সেনাদের তাদের যুদ্ধ, নজরদারি এবং উদ্ধার-সহায়তা অভিযানের প্রশিক্ষণ দিয়েছে। ভারত ও মলদ্বীপের প্রতিরক্ষা সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতার দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে। ১৯৮৮ সালের নভেম্বরে তৎকালীন রাষ্ট্রপতি মামুন আবদুল গাইয়ুম সরকারের অনুরোধে অভ্যুত্থান ঠেকাতে ভারত থেকে সেনারা এই দ্বীপরাষ্ট্রে প্রবেশ করে। বিদ্রোহীদের ধরার পর সেনাবাহিনী বেরিয়ে আসে। এছাড়া ভারত ২০১০ এবং ২০১৫ সালে মলদ্বীপকে দুটি ধ্রুব অ্যাডভান্সড লাইট হেলিকপ্টার সরবরাহ করেছিল। উভয়ই সামুদ্রিক অনুসন্ধান ও উদ্ধার অভিযানের জন্য ব্যবহৃত হয়েছে।

সম্পর্কিত খবর