DA নয়, তবে কর্মীদের জন্য নয়া এক ঘোষণা পশ্চিমবঙ্গ সরকারের! শুনে খুশি হবেন

বকেয়া ও বর্ধিত হারে DA বা মহার্ঘ ভাতার (Dearness allowance) দাবি ঘিরে উত্তাল পশ্চিমবঙ্গ (West Bengal)। শীত, গ্রীষ্ম, বর্ষা, তীব্র গরমকে উপেক্ষা করে শয়ে শয়ে দিন ধরে বাংলায় বিক্ষোভ দেখিয়েই চলেছেন রাজ্যের সরকারী কর্মীরা (Employee)। তাঁদের একটাই দাবি, কেন্দ্রীয় হারে এবং বকেয়া DA মেটাতে হবে।

শুধুমাত্র তাই নয়, আগামী ১৯ জানুয়ারি নতুন করে মহা মিছিলের ডাক দিয়েছে সংগ্রামী যৌথ মঞ্চ। সরকারী আধিকারিকদের দাবি, মুখ্যমন্ত্রী যেন তাঁদের সঙ্গে দেখা করে এবং সমস্যার সমাধান করে। আর যদি সেটা না হয় তাহলে আমরণ অনশনের হুমকি অবধি দেওয়া হয়েছে। তবে এরই মাঝে সরকারী কর্মীদের উদ্দেশ্যে বড় ঘোষণা করে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)।

   

বুধবার শহীদ মিনারের সামনে গুরু গোবিন্দ সিংয়ের জন্মজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপর তিনি সেখান থেকে ঘোষণা করেন, ‘প্রকাশ পূরব’ বাংলায় সেকশনাল ছুটি দেওয়া হবে। মুখ্যমন্ত্রী জানান, “আমি অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে ঘোষণা করছি যে এখন থেকে শ্রী গুরু গোবিন্দ সিংজির ‘প্রকাশ পূরব’ পশ্চিমবঙ্গের শিখ সম্প্রদায়ের সমস্ত রাজ্য সরকারি কর্মচারী, শিক্ষক, পঞ্চায়েত ও পৌর কর্মচারী, রাজ্য বোর্ড, কর্পোরেশন এবং আন্ডারটেকিং কর্মচারীদের জন্য বিভাগীয় ছুটি থাকবে। এটি সেই সাহসী গুরুজির প্রতি আমাদের শ্রদ্ধাঞ্জলি যিনি আমাদের অনুপ্রেরণা দিয়ে চলেছেন।“

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ময়দানে শিখ সম্প্রদায়ের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন এবং বলেছিলেন, “আমাদের অবশ্যই শ্রী গুরু গোবিন্দ সিং জির সাহস, সহানুভূতি এবং নিঃস্বার্থ সেবার শিক্ষা থেকে শিক্ষা নিতে হবে”। শুধুমাত্র শিখ ধর্মাবলম্বী সরকারি কর্মীরাই এই ছুটির সুবিধা নিতে পারবেন।

govt ofc

এর আগে বাংলা ছট পুজোকে বিভাগীয় ছুটি হিসাবে ঘোষণা করেছিল তবে পরে এটিকে সাধারণ ছুটিতে রূপান্তরিত করে সমস্ত কর্মচারীদের বড় উপহার দেয় রাজ্য।

সম্পর্কিত খবর