কনকনে ঠান্ডা থেকে কবে মিলবে মুক্তি! বড় খবর দিয়ে দিল IMD

পাহাড় তো পাহাড়, তীব্র ঠান্ডায় ঠকঠক করে কাঁপছেন সমতলের মানুষজনও। তীব্র ঠান্ডার কারণে মানুষজন বাড়ি থেকেও বেরোতে চাইছেন না কার্যত। কোথাও ১ ডিগ্রি তো কোথাও মাইনাসে নেমে গিয়েছে পারদ। সেইসঙ্গে ঘন কুয়াশা ও অসময়ের বৃষ্টি তো রয়েইছেই। সব মিলিয়ে যা তা অবস্থা হয়ে গিয়েছে দেশবাসীর।

পঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড় থেকে শুরু করে দিল্লির বেশিরভাগ অংশে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২-৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে ওঠানামা করছে। উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান, উত্তর মধ্যপ্রদেশ, বিহার, উত্তরপ্রদেশ এবং ঝাড়খণ্ডের অনেক জায়গায় তাপমাত্রা ছিল ৬-১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে। গতকাল হরিয়ানার হিসারে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে এই ঠান্ডা আর কত দিন চলবে? কনকনে এই ঠান্ডা থেকে কি একটু রেহাই মিলবে?

   

এই বিষয়ে আবহাওয়া দফতরের (India Meteorological Department) তরফে জানানো হয়েছে, আপাতত ঠান্ডা থেকে রেহাই মিলবে না। আগামী ৫ দিনের জন্য ঠান্ডা নিয়ে পূর্বাভাসও জারি করা হয়েছে। উত্তর ভারতের সমতলের উপর দিয়ে ১৪০-১৫০ নট বেগে জেট স্ট্রিম হাওয়া বইছে। ১৭ জানুয়ারি জম্মু ও কাশ্মীর, লাদাখ, গিলগিট, বালতিস্তান, মুজফফরাবাদ, হিমাচল প্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ডের বিচ্ছিন্ন জায়গায় হালকা বৃষ্টি এবং তুষারপাত হয়েছে। বিহার, ঝাড়খণ্ড, ছত্তিশগড়, ওড়িশা, পশ্চিমবঙ্গ, সিকিম এবং উত্তর-পূর্ব ভারতের বিচ্ছিন্ন জায়গায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া আগামী দুদিন অরুণাচল প্রদেশ, অসম, মেঘালয়, নাগাল্যান্ড এবং সিকিমে বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

১৯-২২ জানুয়ারি রাতে কয়েক ঘণ্টা এবং ভোরের দিকে ঘন কুয়াশার পরিস্থিতি থাকবে। চরম সতর্কতা জারি করা হয়েছে পাঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড় ও দিল্লির উদ্দেশ্যে। উত্তরপ্রদেশ, উত্তরাখণ্ড এবং উত্তর মধ্যপ্রদেশেও ঘন কুয়াশার সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত বিহার, উত্তর রাজস্থানের বিক্ষিপ্ত এলাকায় ঘন কুয়াশার সম্ভাবনা রয়েছে। ১৯ জানুয়ারি পর্যন্ত ঝাড়খণ্ড, পশ্চিমবঙ্গ এবং সিকিমেও ঘন কুয়াশার সম্ভাবনা রয়েছে।  অসম ও মেঘালয়ের পাশাপাশি নাগাল্যান্ড, মণিপুর, মিজোরাম ও ত্রিপুরায় ঘন কুয়াশা থাকবে। বিহারের বিভিন্ন জায়গায় শৈত্যপ্রবাহের সম্ভাবনা রয়েছে। ১৮-২১ জানুয়ারি দেশের বিভিন্ন জায়গায় শৈত্যপ্রবাহের সম্ভাবনা রয়েছে।

cold india

আগামী ২৪ ঘণ্টায় উত্তর-পশ্চিম ভারতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা প্রায় ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়তে পারে এবং তার পরে আর কোনও উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন হবে না। আগামী তিন দিনে পূর্ব ভারতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২-৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়তে পারে এবং তার পরে আর কোনও উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন হবে না। একইভাবে আগামী ৫ দিনে দেশের বাকি অংশে সর্বনিম্ন তাপমাত্রার উল্লেখযোগ্য পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই।

সম্পর্কিত খবর