দিঘা-পুরী ছেড়ে ঘুরে আসুন কলকাতার কাছের এই ৪ অল্প চেনা জায়গা! ১২০০ টাকায় সব কমপ্লিট

বাঙালির ঘুরতে যাওয়া মানেই হল দিঘা (Digha), পুরী (Puri) নয়তো দার্জিলিং (Darjeeling)। কিন্তু এবার তো একটু গতে বাঁধা জায়গা থেকে সকলের বেরিয়ে আসার সময় এসে গিয়েছে। মানুষ দেশ, বিদেশের বহু জায়গা আছে যেখানে হাজার হাজার টাকা খরচ করে ঘুরতে যান।

কিন্তু বাংলাতেই এমন বহু জায়গা এমন রয়েছে যেখানে গেলে আপনার চোখ কার্যত কোটর থেকে ঠিকরে বেরিয়ে আসবে বৈকি। আজ এই প্রতিবেদনে বাংলার এমন কিছু জায়গা নিয়ে আলোচনা করা হবে যেখানে জীবনে একবার হলেও ঘুরে আসতে পারেন আপনি। নিরাশ হবেন না এটা গ্যারেন্টি। প্রথমেই আসা যাক লেপচাজগতের (Lepcha Jagat) কথায়। এই জায়গাটি দার্জিলিং থেকে মাত্র কয়েক কিমি দূরে অবস্থিত। নাম থেকেই বোঝা যাচ্ছে, এখানে মূলত লেপচাদের বাস।

লেপচাজগত

   

মূলত প্রায় ১৫-২০ টি লেপচা পরিবার মিলিয়ে এই গ্রামটি গড়ে উঠেছে। এক সময় একে লেপচাবস্তিও বলা হত। সেই সময় আপনি যদি এই জায়গাটি পরিদর্শন করতেন তাহলে আপনাকে থাকার জায়গার অভাব একপ্রকার কুঁড়ে কুঁড়ে খেত। বাধ্য হয়ে আপনাকে স্থানীয় কোনও বাড়িতে আশ্রয় নিতে হত। এই লেপচাজগতে এলে আপনি একপ্রকার প্রকৃতির প্রেমে পড়ে যাবেন। সুদৃশ্য কাঞ্চনজঙ্ঘা আপনাকে হাতছানি দিয়ে ডাকবে।

বাল্মীকিনগর

এবার আসা যাক বাল্মীকিনগরের (Balmiki Nagar) কথায়। আপনিও এই ছুটির মরসুমে কয়েকটা দিন এই সুন্দর জায়গাটিতে কাটিয়ে আসতে পারেন। বাল্মীকিনগর বিহার-নেপাল সীমান্তে অবস্থিত। এখানকার পাহাড়, লেক আপনার মন ছুঁয়ে যাবে। এটি একটি জাতীয় উদ্যান এবং বাঘ সংরক্ষিত এলাকা। পৌরাণিক কাহিনী এবং লোককাহিনী গুলি এই জায়গার সাথে যুক্ত এবং থারু নামে একটি উপজাতি নিকটবর্তী গ্রামগুলিতে বাস করে। এখানকার গন্ডক নদী দেখলে আপনার চোখ ধাঁধিয়ে যাবে। এখানকার শান্ত স্নিগ্ধ প্রকৃতি, পরিষ্কার আকাশ, পাখিদের সমাগম দেখলে আর ফিরে যেতে চাইবেন না।

কাঁকড়াঝোর

বাংলার বুকে অবস্থিত একটি জায়গায় এবারের ছুটিতে ঘুরে আসতে পারেন আপনি। আর এই জায়গাটির নাম হলও কাঁকড়াঝোর (Knakrajhore)। জায়গাটি কলকাতা থেকে মাত্র ১৭০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। প্রাচীন শাল, সেগুন এবং মহুয়া বন দ্বারা বেষ্টিত, এটি একটি মনোরম জনপদ। এখানে রয়েছে ময়ূরঝর্ণা পাহাড় দ্বারা। এছাড়া ময়ূর, হরিণ এবং ভাল্লুকের আবাসস্থল হল এই কাঁকড়াঝোর।

bangriposi f

বাংরিপোসি

এবার আসা যাক বাংরিপোসির (Bangriposi) কথায়। ওড়িশার (Odisha) একটি অদ্ভুত গ্রাম, যেখানে আপনি মাটির বাড়িতে থাকতে পারেন। যারা সৈকত পছন্দ করেন তাদের জন্য রয়েছে বাগুরান জলপাই এবং জুনপুটের মতো সমুদ্রসৈকত। এছাড়া যারা একটু জলাধার পছন্দ করেন তাঁরা ঘুরে আসতে পারেন বরন্তি এবং মুরুগুমা। বিচিত্রপুর, তাবাকোশী, রাইমাতাং-এর মতো আরও কিছু জায়গা রয়েছে যেগুলি সম্পর্কে পর্যটকরা এখনও খুব একটা জানেন না। তবে ভিড় এড়ানোর জন্য এখানে ঘুরে আসতে পারেন আপনি।

সম্পর্কিত খবর