পর্যটকরা সাবধান! এবার দিঘা, মন্দারমণি, তাজপুরে খাবেন এই নোংরা কেস, লাগু কড়া নিয়ম

এই শীতে (Winter) আপনিও কি দিঘা (Didha) ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যান করছেন? তাহলে সেখানে যাওয়ার আগে আজকের এই প্রতিবেদনটি পড়ে ফেলুন। কারণ এখন আর দিঘা যাওয়া কিন্তু সহজ হবে না। একটি বিশেষ কাজ না করলে আপনি দিঘা কেন … মন্দারমণি (Mandarmani), তাজপুর (Tajpur), উদয়পুরে (Udaipur) একটা রুমও কিন্তু পাবেন না। হ্যাঁ শুনতে অবাক লাগলেও এটাই একদম দিনের আলোর মতো সত্যি। আসলে দিঘার মতো সমুদ্র সৈকত এলাকায় কোনওরকম খারাপ কাজ রুখতে বিশেষ কাজ করেছে। দিঘা-মন্দারমণি-তাজপুর হোটেল বুকিংয়ের নিয়ম বদল এসেছে।

শীতকাল এসে গিয়েছে, তাই দিঘা-মন্দারমণি-তাজপুরে যানজট বাড়ছে। পর্যটকরা এখানে আসেন এবং একসাথে ছুটি এবং শীতকাল উপভোগ করেন। তাছাড়া বাঙালিদের কাছে সাপ্তাহিক ছুটির দিনটি খুবই প্রিয়। কিন্তু পুলিশ সূত্রে খবর, গত দু’বছর ধরে দিঘা-মন্দারমণিতে অপরাধের প্রবণতা বেড়েছে। অন্তত পুলিশের রেকর্ড তাই বলছে। অনেক হোটেল রুমে তরুণ-তরুণীর লাশ মিলছে। এদিকে সৈকতের পারে রমরমিয়ে চলছে মধুচক্র বলে খবর।

   

সম্প্রতি পুলিশ অভিযান চালিয়ে বেশ কয়েকজন যুবক যুবতীকে গ্রেপ্তার অবধি করেছে। এবার এই প্রবণতা রুখতে কড়া ব্যবস্থা নিচ্ছে পুলিশ। কঠোর পদক্ষেপের ফলে পর্যটকরা ইচ্ছে করলেই আর হোটেল রুম বুক করতে পারবেন না। তার জন্য যাবতীয় কাগজপত্র জমা দিতে হবে হোটেল রিসোর্ট কর্তৃপক্ষের কাছে। আর হোটেল-রিসোর্ট কর্তৃপক্ষের সেই নথি পোর্টালে আপলোড করা। নিয়ন্ত্রণের জন্য জেলায় সরকারিভাবে ‘অতিথি’ পোর্টাল চালু করা হয়েছে।

অন্যদিকে জুনপুট মহকুমা থানা চালু হয়েছে। এডিজি এবং আইজিপি পশ্চিম ত্রিপুরা অথর্ব জুনপুট উপকূল থানার নতুন ভবনের উদ্বোধন করেন। একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার উদ্যোগে পুলিশের গেস্ট রিপোর্টিং পোর্টাল ‘অতিথি’ও উদ্বোধন করা হয়। বেশ কয়েকজন পুলিশ আধিকারিকের উপস্থিতিতে পোর্টালটি চালু করা হয়।

digha sa

এই নতুন পোর্টাল প্রসঙ্গে দিঘা শংকরপুর হোটেল সংগঠনের যুগ্ম সম্পাদক বিপ্রদাস চক্রবর্তী বলেন, “এর ফলে আমাদের হয়রানি অনেকটা কমবে। কারণ পর্যটকরা অনেকেই এসে অনেক কিছু করতেন। এখানে এসে কেউ মার্ডার হয়ে গেলেন, সেই কেসে পাঁচ বছর পরও আমাদের খাতা নিয়ে যেতে হত। কিন্তু এখন আর এসব হবে না।”

সম্পর্কিত খবর