১৬৭ বছর ধরে দিয়ে যাচ্ছে পরিষেবা! এটিই হল ভারতের সবথেকে পুরনো রেল স্টেশন

দেশে প্রতিদিন কোটি কোটি মানুষ ট্রেনে যাতায়াত করেন। দেশের যোগাযোগের ক্ষেত্রে ভারতীয় রেলের (Indian Railways) গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে। এই কারণে, ভারতীয় রেলকে দেশের লাইফলাইনও বলা হয়। এদিকে ভারতীয় রেলের পরিচালন ব্যবস্থা নিয়ে মানুষের মধ্যে কিন্তু কৌতূহলের অন্ত নেই।

ভারতীয় রেলের সবথেকে পুরনো রেলস্টেশন কোনটি?

ভারতীয় রেলের নির্মাণ আজ থেকে বহু বছর আগে হয়েছিল। কোন জায়গায় প্রথম ট্রেন ছুটেছিল, দেশের প্রথম স্টেশন (Train Station) কোনটি…ইত্যাদি ইত্যাদি নিয়ে মানুষের মধ্যে কৌতূহলের কিন্তু অন্ত নেই। তবে আপনার মনে কি কখনও এই প্রশ্ন জেগেছে যে ভারতীয় রেলের সবথেকে পুরনো রেলস্টেশন কোনটি? আজ এই প্রতিবেদনে সেই বিষয়টি নিয়েই আলোচনা হবে বৈকি।

তামিলনাড়ু রাজ্যে অবস্থিত এই স্টেশন

   

তামিলনাড়ুর (Tamil Nadu) রায়পুরম (Royapuram Railway Station) দক্ষিণ ভারতের প্রথম রেলওয়ে স্টেশন। রেলওয়ে স্টেশনটি তার ১৬৭ বছর পূর্ণ করেছে। বর্তমানে এটি পশ্চিমবঙ্গের হাওড়ার (Howrah) পরে ভারতের দ্বিতীয় প্রাচীনতম রেলওয়ে স্টেশন হয়ে উঠেছে। স্টেশনটি এখন প্রতিদিন ৪০ টি লোকাল ট্রেন এবং সাত জোড়া এক্সপ্রেস ট্রেন পরিচালনা করে করে রেল। ১৮৫৬ সালের ২৮ জুন এই স্টেশন থেকে দক্ষিণ ভারতের প্রথম ট্রেন চলাচল শুরু হয়। এবার আসা যাক ভারতের প্রাচীনতম রেলওয়ে স্টেশন সম্পর্কে।

মাদ্রাজ রেলওয়ের আন্ডারে ছিল এই স্টেশন

১৮৪৯ সালে যখন মাদ্রাজ রেলওয়ে কোম্পানি পুনর্গঠিত হয়, তখন দক্ষিণ ভারতে একটি নতুন রেলপথ নির্মাণের পরিকল্পনা করা হয়। এরপরেই রায়পুরমকে নতুন স্টেশনের অবস্থান হিসাবে বেছে নেওয়া হয়েছিল। কারণটি হ’ল এটি ফোর্ট সেন্ট জর্জের কাছে ব্রিটিশ বণিকদের বসতির প্রান্তে ছিল। ১৮৫৩ সালে দক্ষিণ লাইনের কাজ শুরু হয়েছিল এবং এটি রায়পুরম থেকে আরকোট পর্যন্ত প্রসারিত হয়েছিল যা তখন কর্ণাটকের নবাবের রাজধানী ছিল। ১৮৫৬ সালের ২৮ জুন গভর্নর লর্ড হ্যারিস স্টেশনটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। বিমানের প্রথম যাত্রী ছিলেন মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির গভর্নর।

royapuram

১৮৫৬ সালের ১ জুলাই উদ্বোধনী দিনে, প্রথম যাত্রীবাহী ট্রেনটি রায়পুরম থেকে ওয়ালজাহ রোড পর্যন্ত ৬০ মাইল (৯৭ কিমি) দৌড়েছিল। সিম্পসন অ্যান্ড কোং দ্বারা নির্মিত প্রথম ট্রেনটি গভর্নর লর্ড হ্যারিস এবং ৩০০ ইউরোপীয়দের সাথে যাত্রা শুরু করেছিল। একই দিনে তিরুভাল্লুর পর্যন্ত আরও একটি ট্রেন চালানো হয়েছিল। এটি ভারতীয় ভ্রমণকারীদের “ত্রিভালুরে” নিয়ে যায়।

রায়পুরম রেলওয়ে স্টেশনটি ১৯২২ সাল পর্যন্ত মাদ্রাজ ও দক্ষিণ মহারত্তা রেলওয়ের সদর দফতর ছিল। রেনেসাঁ যুগের ধ্রুপদী শৈলীতে নির্মিত কাঠামোটি ডিজাইন করেছিলেন উইলিয়াম অ্যাডেলপি ট্রেসি। সময় এবং আধুনিকীকরণের সাথে সাথে এখানে প্রায় সবকিছুই পরিবর্তিত হয়েছে। অবশ্য রায়পুরমের গৌরব এখনও অসাধারণ, তা সত্ত্বেও গত কয়েক বছরে যাত্রী সংখ্যা কমেছে। মাঝে মাঝে হাতেগোনা কয়েকজন পর্যটক আসেন এখানে।

সম্পর্কিত খবর