এবার মধ্যশিক্ষা পর্ষদের বিরুদ্ধে চরম পদক্ষেপ শিক্ষকদের! পিছোতে পারে মাধ্যমিকের সময়

শিয়রে মাধ্যমিক পরীক্ষা (Madhyamik Pariksha)। পরীক্ষা শুরু হতে ৮ দিন মতো বাকি। সকল পরীক্ষার্থীর প্রস্তুতি এখন একপ্রকার তুঙ্গে রয়েছে। সেইসঙ্গে সকলের মধ্যে জীবনের প্রথম বড় পরীক্ষাকে ঘিরে আলাদা একটা উত্তেজনা তো কাজ করছেই করছে। এরই মাঝে প্রকাশ্যে উঠে এল আরও বড় খবর, যা পড়ুয়া থেকে শুরু করে পরীক্ষার্থীদের অভিভাভবকদেরও জেনে রাখা দরকার।

ইতিমধ্যে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের (West Bengal Board Of Secondary Education) তরফে মাধ্যমিক থেকে শুরু করে উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষার সময়সীমা অনেকটাই এগিয়ে নিয়ে আসা হয়েছে। এদিকে পর্ষদের এহেন সিদ্ধান্তের কারণে ক্ষোভে ফুঁসছেন একের পর এক শিক্ষক (Teacher)। ফলে এবার শিক্ষক সংগঠন চরম সিদ্ধান্ত নিয়েই ফেলল, যা দেখে সকলেই চমকে গিয়েছেন। ইতিমধ্যে প্রশ্ন উঠছে, আদৌ পরিক্ষাটা হবে তো?

   

জানা গিয়েছে, এবার মাধ্যমিক পরীক্ষার সময় বদল করার বিরোধিতায় কলকাতা হাইকোর্টে (Calcutta High Court) মামলা দায়ের করা হল। বিচারপতি বিশ্বজিৎ বসুর এজলাসে এই মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলাকারীর দাবি, সময় বদলের জন্য ব্যাপক সমস্যায় পড়বে ছাত্র ছাত্রীরা। বিশেষ করে যারা দূর থেকে আসে।  মামলাকারীর আইনজীবীর আবেদন, আগের সময়েই পরীক্ষা হওয়ার নির্দেশ দিক আদালত। এই মামলায় দ্রুত শুনানির আবেদন জানিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে।

বিচারপতি জানিয়েছেন, সবপক্ষের উপস্থিতিতে শুনানি সম্ভব। আজ এই মামলার শুনানি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে প্রবল। মাধ্যমিক পরীক্ষার সময়  পিছিয়ে দেওয়ার  দাবি জানিয়ে আদালতে মামলাটি করেছে বৃহত্তর গ্র্যাজুয়েট টিচার্স অ্যাসোসিয়েশন। সংগঠনটির অভিযোগ, পড়ুয়াদের কথা না ভেবে, কারও সঙ্গে কোনও আলোচনা না করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর ফলে গ্রাম শহর উভয় অঞ্চলের পরীক্ষার্থীরাই সমস্যায় পড়বেন।

students

উল্লেখ্য, মধ্যশিক্ষা পর্ষদের তরফে জানানো হয়েছে, এবারে মাধ্যমিক পরীক্ষা সকাল ১১:৪৫ মিনিটের বদলে পরীক্ষা শুরু হবে সকাল ৯:৪৫ মিনিটে। শেষ হবে দুপুর ১টার সময়ে৷ অন্যদিকে জানা যাচ্ছে, উচ্চ মাধ্যমিক এই বছর বেলা ১২টার পরিবর্তে সকাল ৯:৪৫ নাগাদ শুরু হবে। অর্থাৎ সময় এক ধাক্কায় অনেকটাই এগিয়ে এল। সূত্রের খবর, নবান্নে রাজ্য প্রশাসন ও পর্ষদ-সংসদের সঙ্গে বৈঠকে পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সম্পর্কিত খবর