রোজ উঠবে ৪৫ হাজার ব্যারেল পেট্রোলিয়াম! ভারতে মিলল অফুরন্ত তেলের ভাণ্ডার

দেশে (India) পেট্রোল (Petrol) ও ডিজেলের (Diesel Fuel) ঊর্ধ্বমুখী দাম নিয়ে নাজেহাল সাধারণ আমজনতা। কবে এই দাম কমবে? সেই নিয় সকলেই প্রশ্ন তুলছেন। তবে আদৌ কি কমবে? এহেন হাজারো প্রশ্নের মাঝেই বড় কাজ করে দেখালো ভারত। কেউ হয়তো কল্পনাও করতে পারেনি এমন ঘটবে।

বঙ্গোপসাগরে তেলের ভাণ্ডার

কারণ এবার ওএনজিসি (Oil and Natural Gas Corporation) বঙ্গোপসাগরে (Bay Of Bengal) কৃষ্ণা গোদাবরী অববাহিকায় (Krishna Godavari Basin) তার বহু প্রতীক্ষিত বড় গভীর সমুদ্র প্রকল্প থেকে তেল উৎপাদন শুরু করেছে। সম্প্রতি পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরী (Hardeep Singh Puri) সোশ্যাল মিডিয়ায় এই বিষয়ে ঘোষণা করেছেন। এটি বহু বছর ধরে উৎপাদন হ্রাসের প্রবণতাকে বিপরীত করতে সহায়তা করবে। ONGC এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, গত ৭ জানুয়ারি বঙ্গোপসাগরের মাঝ সমুদ্রে থাকা কেজি-ডিডব্লিউএন-৯৮/২ ব্লক থেকে প্রথম তেল ছাড়া হয়।

৪টি কূপ চালু হয়েছে

   

কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরি জানিয়েছেন, অন্ধ্রপ্রদেশের কাকিনাড়া উপকূল থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে একটি গভীর সমুদ্র প্রকল্প থেকে প্রথমবারের মতো তেল উত্তোলন করা হয়েছে। ২০১৬-১৭ সালে শুরু হওয়া প্রকল্পটি গত ৭ জানুয়ারি প্রথম বাতিল করা হয়। ওএনজিসি এর আগে ২০২১ সালের নভেম্বরের মধ্যে এই প্রকল্প থেকে তেল উত্পাদন শুরু করার পরিকল্পনা করেছিল। তবে সিওভির কারণে কিছুটা বিলম্ব হয়েছিল। হরদীপ সিং পুরি জানান, ২৬টি কূপের মধ্যে ৪টি কূপ ইতিমধ্যে চালু রয়েছে।

কৃষ্ণা গোদাবরী অববাহিকার গুরুত্ব

মন্ত্রী জানান, ‘গ্যাস তো রয়েইছেই, এর পাশাপাশি মে-জুনের মধ্যে আমরা প্রতিদিন ৪৫ হাজার ব্যারেল তেল উৎপাদন করতে পারব। এটি হবে আমাদের মোট অপরিশোধিত তেলের চাহিদার ৭ শতাংশ এবং গ্যাস উৎপাদনের ৭ শতাংশ।‘ তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাস কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় এই বিষয়ে একটি পোস্ট শেয়ার করা হয়েছে। কৃষ্ণা গোদাবরী অববাহিকার কাকিনাড়া উপকূল থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে তেল উত্তোলন করা শুরু হয়েছে।

ongc

প্রশ্ন উঠছে, তবে কি পেট্রোল ও ডিজেলের দাম কমবে? এই বিষয়ে এখনও অবধি কিছু জানা যায়নি। উল্লেখ্য, ভারত বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম তেল আমদানিকারক দেশ। ভারত তার অভ্যন্তরীণ চাহিদা মেটাতে বিশ্ব বাজার এবং বিভিন্ন উৎস থেকে আমদানি করা অপরিশোধিত তেলের উপর নির্ভরশীল।

সম্পর্কিত খবর