৪০ বছর পর খুলল কপাল! লটারি জিতলেন বনগাঁর দরিদ্র টোটো চালক, টাকার অঙ্ক চমকে দেবে

লটারি (Lottery) এমন একটি জিনিস যেটা যে কারোর ভাগ্য বদলে দিতে পারে। লটারি টিকিট (Lottery Ticket) কেটে সকলেই অল্প সময়ের মধ্যে বেশি টাকা পেতে চান। এদিকে এই লটারি এমন বহু মানুষ আছে যাদেরকে বড়লোক করে ছেড়েছে আবার এই লটারি নেশা এমন বহু মানুষ আছে যাদেরকে রাস্তার ভিখারি করে ছেড়ে দিয়েছে।

মাসের পর মাস বছরে পর বছর ধরে নিজেদের ভাগ্য বদলানোর তাগিদে মানুষ লটারি টিকিট কেটে থাকেন। ঠিক তেমনি যাতে একটু ভাগ্য বদলায় তার জন্য বিগত ৪০ বছর ধরে একজন ব্যক্তি লটারি টিকিট কেটে চলেছেন। একদমই ঠিক শুনেছেন টানা ৪০ বছরের নিজের ভাগ্য বদলানোর জন্য ‘পরীক্ষা’ দিয়েই চলেছেন বনগাঁর টোটো চালক বিমল বিশ্বাস।

   

সংসারের টানতে বিগত বহু বছর ধরে তিনি টোটো চালাচ্ছেন তবে লটারি কাটার নেশা তার পিছু কোনওভাবেই পিছু ছাড়েনি । তিনি বিগত ৪০ বছর ধরে যাতে কিছু টাকা উপার্জন করা যায় তার জন্য লটারি কেটে যেতেন তবে এবার এই লটারি কাটার নেশায় তাকে কোটিপতি করে রেখে দিল। হ্যাঁ ঠিকই শুনেছেন।

ভাগ্য ফেরানোর আশায় সম্প্রতি লটারি টিকিট কেটেছিলেন টোটো চালক বিমল বিশ্বাস। আর এই লটারির টিকিটই যে রাতারাতি তার ভাগ্য বদলে দেবে সেটা কেউ ভাবতে পারেনি। বিমল বিশ্বাসের পরিবার জানিয়েছেন, অন্যান্য দিনের মতো রবিবারও লটারি কেনেন তিনি। এরপর রাতে ফলপ্রকাশ হতেই সকলেই চমকে যান। দেখেন নিনি কোটি টাকা জিতেছেন।

lottery bongaon

স্বাভাবিকভাবে সকলে মনে একটাই প্রশ্ন উঠছে বিমল বাবু এই টাকা দিয়ে কী করবেন? এই বিষয়ে তিনি জানিয়েছেন, পাকা বাড়ি করবেন। ছেলে মেয়েদের ভবিষ্যৎ যাতে সুনিশ্চিত হয় সেজন্য কিছু ব্যবস্থা করবেন। এর পর নিজের চিকিৎসা করাবেন। দীর্ঘদিন ধরেই চোখের সমস্যা, নার্ভের সমস্যায় ভুগছেন। তবে এবার এই টাকা দিয়ে তিনি নিজের চিকিৎসা করবেন।

সম্পর্কিত খবর