২০ হাজার টাকা বেতনেও হতে পারবেন কোটি টাকার মালিক! শুধু মেনে চলুন এই সহজ পদ্ধতি

বর্তমান সময় কোটিপতি হবার স্বপ্ন (Dream) কে না দেখেন। কিন্তু সব সময় চাইলেই তো আর সব পাওয়া যায় না। তবে কিছুটা আপনি যদি বুদ্ধি খাটাতে পারেন তাহলে আপনিও মাত্র কয়েক বছরের মধ্যে কয়েক কোটি (Crore) টাকার (Indian Rupee) মালিক হয়ে উঠতে পারেন। শুনতে অবিশ্বাস্যকর মনে হলেও এটাই সত্যি।

মাস গেলে কিছু টাকা সঞ্চয় করলেই হবে কেল্লাফতে। আপনার যদি বেতন (Salary) খুব বেশি নাও হয় তাহলেও চিন্তা নেই। আগামী কিছু বছরের মধ্যে আপনিও হয়ে উঠতে পারবেন কয়েক লাখ বা কয়েক কোটি টাকার মালিক। তবে সেটা কিভাবে তা বিস্তারিত জানতে ঝটপট পড়ে ফেলুন এই প্রতিবেদনটি।

   

ধরুন আপনার বেতন যদি ২০ হাজার টাকা হয় তাহলে আপনার বেতনের ২৫ শতাংশ অর্থাৎ ৫০০০ টাকা করে প্রতি মাসে সঞ্চয় করুন। এরপর তা প্রতি ছয় মাস অন্তর অন্তর বাড়ান। এছাড়া আপনার যদি বেতন ৫০ হাজার টাকা হয় তাহলে প্রতি মাসে আপনার তিরিশ শতাংশ অর্থাৎ, ১৫০০০ টাকা করে সঞ্চয় করা উচিত।

আজকের সময়ে এসআইপি বিনিয়োগের (Systematic investment plan) একটি মাধ্যম হয়ে উঠেছে, যার মাধ্যমে যে কোনো ব্যক্তি সহজেই নিজেকে কোটিপতি বানাতে পারেন। মিউচুয়াল ফান্ডগুলি SIP-র মাধ্যমে বিনিয়োগ করা হয়। বাজারের সাথে যুক্ত হওয়ার কারণে, এতে খুব কম ঝুঁকি রয়েছে এবং কোনও গ্যারান্টিযুক্ত রিটার্ন নেই, তবে এসআইপি রিটার্ন গত কয়েক বছরে গড়ে ১২% পর্যন্ত দেখা গেছে। এমন পরিস্থিতিতে যে কোনো ব্যক্তি দীর্ঘমেয়াদে এতে বিনিয়োগ করে ভালো পরিমাণ অর্থ যোগ করতে পারেন।

money save
আপনি যদি আগামী ২০ বছরের মধ্যে কোটিপতি হতে চান তবে আপনাকে দীর্ঘমেয়াদে এসআইপিতে বিনিয়োগ করতে হবে। আপনি যদি প্রতি মাসে ১০,০০০ টাকা বিনিয়োগ করেন তবে আপনি সহজেই ২০ বছরের মধ্যে কোটিপতি হয়ে যেতে পারবেন। এসআইপি ক্যালকুলেটর অনুসারে, ২০ বছর ধরে একটানা ১০,০০০ টাকা জমা দেওয়ার পরে, আপনার মোট বিনিয়োগ হবে ২৪,০০,০০০ টাকা। কিন্তু ১২ শতাংশ অনুযায়ী রিটার্ন হিসেবে পাবেন ৭৫,৯১,৪৭৯ টাকা। তদনুসারে, আপনি ৯৯,৯১,৪৭৯ টাকা পাবেন অর্থাৎ মেয়াদপূর্তিতে প্রায় ১ কোটি টাকা।

বিশেষজ্ঞদের মতে, আপনি যদি কম সময়ের মধ্যে বেশি টাকা জমাতে চান তাহলে প্রথমেই আপনাকে অপ্রয়োজনীয় খরচ এড়িয়ে চলতে হবে। অপ্রয়োজনীয় ব্যয়ের একটি তালিকা তৈরি করুন, যা আপনি প্রতি মাসে অপ্রয়োজনীয়ভাবে ব্যয় করেন সেগুলি দেখে নিন। সবসময় অনলাইন শপিং না করাই ভালো। ব্যাঙ্কে কিছু টাকা জমতে দিন।

এছাড়া এসআইপিতে আপনি টাকা বিনিয়োগ করতে পারেন। এরই সঙ্গে পোস্ট অফিসের বিভিন্ন স্কিমেও আপনি কয়েক মাস বা কয়েক বছরের জন্য বিনিয়োগ করতে পারেন। এভাবে আপনি কয়েক বছর পর কিছুটা টাকার মুখ দেখতে পারবেন।

সম্পর্কিত খবর