লটারি লাগল সরকারি কর্মীদের! DA-র পর ফের একটি বড় ঘোষণা, শুনে লাফাচ্ছে সবাই

ডিএ (Dearness allowance) নিয়ে অপেক্ষার মাঝেই বড় ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় সরকার (Central Government)। কেন্দ্র সরকারের একটি সিদ্ধান্তের কারণে উপকৃত হতে চলেছেন কয়েক কোটি কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মী (Employee)। কেউ এতো ভাবতেও পারিনি যে লোকসভা ভোটের আগে এরকম সিদ্ধান্ত নিতে পারে কেন্দ্রীয় সরকার। আসলে এমপ্লয়ি প্রভিডেন্ট ফান্ড (Employees’ Provident Fund Organisation) নিয়ে বড় আপডেট সামনে এসেছে। ইপিএফও-র প্রায় ৬ কোটি কর্মী উপহার পেয়েছেন সুদের হার। এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট ফান্ড অর্গানাইজেশন (EPFO) ২০২৩-২৪ সালের জন্য সুদের হার বাড়িয়ে ৮.২৫ শতাংশ করার ঘোষণা করেছে।

২০২২-২৩ অর্থবছরে সুদের হার ছিল ৮ দশমিক ১৫ শতাংশ। ২০২১-২২ সালে সুদের হার ছিল ৮.১০ শতাংশ। ২০২০-২১ সালে সুদের হার ছিল ৮.৫ শতাংশ, কিন্তু এখন ২০২৩-২৪ সালে সুদের হার হবে ৮.২৫ শতাংশ। শনিবার ইপিএফও-র সিদ্ধান্ত গ্রহণকারী সংস্থা সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ট্রাস্টি (সিবিটি) এক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে সুদের হার বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

   

ইপিএফও সূত্রের খবর, শনিবার সিবিটি-র একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক ডাকা হয়েছিল, যেখানে কমিটি অনেক আলোচনার পরে সুদের হার বাড়িয়ে ৮.২৫ শতাংশ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রস্তাব ও কাগজপত্র প্রস্তুত করা হয়েছে, যা অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। সেখান থেকে অনুমোদন পাওয়া মাত্রই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করে গ্রাহকদের অ্যাকাউন্টে জমা হবে নতুন দর।

রিপোর্ট অনুযায়ী, সারা দেশে প্রায় ৬ কোটি কর্মচারী এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট ফান্ড অর্গানাইজেশনের অধীনে নথিভুক্ত। মোট আমানতের ওপর বছরে একবার সুদ পাবেন ৩১ মার্চ। প্রতি বছর সুদের হারের জন্য একটি সভা আহ্বান করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট ফান্ড হল ২৫ বা তার বেশি কর্মচারী রয়েছে এমন সংস্থায় কর্মরতদের জন্য একটি সরকারি প্রকল্প।

Epf

এর আওতায় প্রতি মাসে কর্মচারীর বেতনের ১২ শতাংশ তাদের পিএফ অ্যাকাউন্টে জমা হয়। একই পরিমাণ অর্থ কোম্পানির পক্ষ থেকে কর্মীদের পিএফ অ্যাকাউন্টে রাখা হয়। কোম্পানির শেয়ারের মধ্যে ৩ দশমিক ৬৭ শতাংশ অর্থ পিএফ অ্যাকাউন্টে এবং বাকি ৮ দশমিক ৩৩ শতাংশ কর্মচারীর অ্যাকাউন্টে।

সম্পর্কিত খবর