বাংলায় কবে প্রবেশ করবে বর্ষা, জানিয়ে দিলো আবহাওয়া দপ্তর

গরমে হাঁসফাঁস অবস্থা সারা রাজ্যের। একাধিক জায়গাতে দেখা মেলেনি কালবৈশাখীরও, ফলে নাজেহাল অবস্থা সাধারণ মানুষের। এখনো পর্যন্ত এই গরমে বৃষ্টি না হলেও আবার শীতকালে হয়েছে রেকর্ড বৃষ্টি। কিন্তু তীব্র গরমে অতিষ্ট বাঙ্গালী অধীর আগ্রহে বর্ষার জন্য দিন গুনছে। কিছু কালবৈশাখী এবং ঘূর্ণিঝড় অশনির প্রভাবে কিছুটা স্বস্তি মিললেও দীর্ঘ সময় থাকেনি তার প্রভাব। এই জলবায়ুর হঠাৎ পরিবর্তনের ফলে চলতি বছরে কখন আসছে বর্ষা? এদিন খুশির খবর জানালো মৌসমভবন।

এদিন মৌসম ভবন থেকে প্রকাশিত রিপোর্ট থেকে জন্য যাচ্ছে যে, এবছর নির্ধারিত সময়ের কিছু আগেই দেশে প্ৰবেশ করতে চলেছে বর্ষা। প্রত্যেক বছরই মে মাসের প্রথম তিন সপ্তাহের কোনোদিনই দেখা মেলেনা বর্ষার। তবে এই প্রথম ১৫ মের মধ্যে প্রবেশ করতে চলেছে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু। তারা এদিন সাংবাদিক সম্মেলনের জানায় যে, “এবছর মে মাসের 15 তারিখের মধ্যে দক্ষিণ আন্দামান সাগর এবং দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর হয়ে মৌসুমী বায়ু ভারতে প্রবেশ করতে চলেছে। প্রতি বছরের তুলনায় এ বছর এক সপ্তাহ পূর্বে এই মৌসুমী বায়ু আমাদের দেশে আসবে।”

এবছর তীব্র দাবদাহ কোপে পড়েছে বাংলা সহ গোটা দেশ। এবছর রেকর্ডভাবে বেড়েছে তাপমাত্রা।আর এরই মধ্যে মৌসুম ভবনের এই খবরে যেন স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছে দেশবাসী। কিন্তু এরই মধ্যে দিল্লিতে তাপপ্রবাহের জেরে জারি করা হয়েছে হলুদ সতর্কতা। কিন্তু জানেন কি, কি এই হলুদ সতর্কতা?

দেশের বেশ কিছু প্রান্তে বৃষ্টির দেখা মিললেও মহারাষ্ট্র, গুজরাট, রাজস্থান এবং দিল্লিতে তাপমাত্রার পারদ রয়েছে ৪০ ডিগ্রি উপরেই। এমনকি ভবিষ্যতে তাপমাত্রার পারদ আরও চড়বে বলেই ধারনা বিশেষজ্ঞদের। এজন্যই এদিন রাজধানীতে হলুদ সর্তকতা জারি করে মৌসম ভবন। তাদের বক্তব্য অনুযায়ী, “আগামী দুদিন দিল্লিতে তাপমাত্রা ৪৪-৪৫ ডিগ্রির মধ্যে ঘোরাফেরা করবে।”

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button