আমরা হিন্দি বলতে পারলে, তুমি কেন বাংলা পারবে না! শর্মিলার ধমক খেয়ে যা বলল আদিত্য

বর্তমানে ভাষার জ্ঞান যেন কিছুটা ফিকে হয়েছে। বাঙালি (Bengali) নিজের মাতৃভাষা ছেড়ে হিন্দি এবং সর্বোপরি ইংরেজি বলতে অভ্যস্ত হয়ে পড়েছে। বাংলা ছেড়ে হিন্দি এবং ইংরেজি বলতে পারা হালফ্যাশন হয়ে দাঁড়িয়েছে। কেও কেও তো আবার বলেই দেন যে, তাদের ছেলেমেয়েদের ‘বাংলাটা ঠিক আসেনা’।

বাঙালি যতই বাংলা ভাষার অমর্যাদা করে থাকুক না কেন, বাংলার বাইরে যারা থাকেন তারা তারা কিন্তু নিজেদের ভাষা বা সংস্কৃতির অবমাননা মেনে নেন না। তেমনই একজন হলেন অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুর (Sharmila Tagore)। এক অনুষ্ঠানের মঞ্চে তিনি একহাত নেন বাংলার বাঙালিদের।

শর্মিলা ঠাকুর এসেছিলেন ইন্ডিয়ান আইডলের মঞ্চে। সেখানের প্রধান অতিথি বিচারক ছিলেন শর্মিলা। এবারের ইন্ডিয়ান আইডলের মঞ্চে অনেক প্রতিযোগীর মধ্যে একজন ছিলেন সোনাক্ষী। সোনাক্ষী এদিন শর্মিলাকে দেখে এতটাই উত্তেজিত হয়ে পড়েন যে, তিনি কাছে গিয়ে শর্মিলাকে বলেন যে, “আপনাকে দেখে আমার খুব খুব ভাল লাগছে। ম্যাম আমি কি আপনাকে কাকিমা বলে ডাকতে পারি?” এই কথার উত্তরে শর্মিলা বলেন যে, ‘কাকিমা, মাসিমা, দিদি, দিদিমা, তোমার যা ইচ্ছে তাই বলতে পারো।’

বাংলায় কথোপকথন হওয়ায় শোয়ের সঞ্চালক আদিত্য নারায়ণ কিছুই বুঝতে পারছিলেন না। অনেক চেষ্টার পর শেষে এটুকু বলেন যে, “আমাকে বুঝতে পারি না”। চেষ্টা করেও এর বেশি কিছুই বলতে পারেননি তিনি। শর্মিলা তাকে এদিন তার ভুল বুঝিয়েও দেন। কিন্তু আদিত্যর পরের কথায় তাকে একেবারে তুলোধোনা করেন শর্মিলা।

আদিত্যকে তার ভুল ধরিয়ে দেওয়ার পর বাংলা বুঝতে না পারার কারণে শর্মিলা আদিত্যকে বলেন, “আমরা বাংলা থেকে এসে হিন্দি বলতে পারি। তাহলে তোমরা বাংলা শিখতে পারবে না কেন?” এদিকে শর্মিলার কাছে এই বকুনি খেয়ে আদিত্য ভাঙা ভাঙা বাংলায় বলে ওঠেন যে, “একটু একটু চেষ্টা করছি… ঠিক থা ক্যায়া?”

ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিও। বিভিন্ন বাঙালি সংগঠনও সেই ভিডিও শেয়ার করে বাংলার মধ্যে। আর সেই কারণে বাংলার মেয়ে শর্মিলা ঠাকুর এখন আরেকবার জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। প্রসঙ্গত সত্যজিৎ রায়ের সিনেমা দিয়ে নিজের অভিনয় জীবন শুরু করেন শর্মিলা। এরপর বলিউডে দীর্ঘ সময় কাটালেও তিনি যে, চিন্তনে এবং মননে এখনো বাঙালি রয়ে গিয়েছেন সেকথা প্রমাণ করে দিলেন।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button