গঙ্গার ঘাটেই চলছিল উদ্দাম মত্ততা, বেত নিয়ে উত্তম মধ্যম দিলেন সন্ন্যাসী! ভাইরাল ভিডিও

বর্তমান দিনে সোশ্যাল মিডিয়ার ক্ষমতা অসীম। এটি এমন এক জায়গা, যেখানে আমরা বহুসময় বহুরকমের ভিডিও ছবি ইত্যাদি দেখতে পাই। আবার সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েই বদলে গিয়েছে অনেকের জীবন, তো আবার অনেকের অন্ধকার দিকের ছবিও তুলে ধরেছে এই সোশ্যাল মিডিয়াই। নানা অজানা অচেনা বস্ত ভাইরাল হতে থাকে সোশ্যাল মিডিয়াতে। তবে সাম্প্রতিক যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে, তা প্রশংসা কুড়িয়েছে নেটিজেনদের কাছে।

হিন্দু শাস্ত্রমতে মা গঙ্গা ভারতের সবচেয়ে পবিত্র নদী। পুরাকাল থেকেই গঙ্গা নদীকে পুজো করে আসছে দেশবাসী। গঙ্গার জলে সারা দেশের জলতৃষ্ণা দুর হয় বলে ‘মা’ অ্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে এই নদীকে। বিভিন্ন শুভ কাজ শুরু করতে গেলে প্রথমেই প্রয়োজন হয় গঙ্গাজলের। বারানসী তে প্রত্যেকে সন্ধেবেলা ঘাটে আরতি হয় মা গঙ্গার। কিন্তু সেই মা গঙ্গার কাছেই মদ্যপান করে চলেছে কিছু যুবক!

সম্প্রতি এক সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারী ফেসবুকে একটি ভিডিও শেয়ার করেন, সেখানে দেখা যাচ্ছে মা গঙ্গার ওপরেই মত্ত হয়ে মদ্যপান করে চলেছে কিছু উচ্ছৃঙ্খল যুবক। কিন্তু এরপর যা ঘটলো তার জন্য প্রস্তুত থাকেনি কেউই। ভিডিওতে এর পরেই দেখা যাচ্ছে যে, মা গঙ্গার ঘাটে কিছু যুবক মিলে মত্ত হয়ে উল্লাসভাবে মদ্যপান চালাচ্ছিল, আর তাই দেখে সেখানে হাজির হন এক হিন্দু সন্ন্যাসী। এবং এর পরেই শুধু শাসন নয়, রুদ্রমূর্তিতে তাদের মারতে উদ্যত হন তিনি। দুই চার ঘা খাওয়ার পরই পণ্ডিত মশাইয়ের মূর্তির সামনে টিকতে না পেরে উঠে দাঁড়ায়, আর তার পরই চম্পট দেয় তারা।

মা গঙ্গার ওপর এইরকম হীন কাজকর্মের প্রতিবাদ করায় ইতিমধ্যে ভাইরাল সেই পণ্ডিতমশাই। ঘটনার ফলে পণ্ডিত মশাইয়ের প্রশংসায় মুখর সারা নেটবাসি। ভিডিওটি শেয়ার করার সময় সেই ব্যবহারকারি লিখেছিলেন যে, “মা গঙ্গার তীরে মদ্যপান, পন্ডিত জি দিয়েছেন চড়াম চড়াম।” এরপর জনসমক্ষে আসতেই ভিডিওটি দ্রুত ভাইরাল হয়ে পরে চারিদিকে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button