Viral Video: প্রচুর টাকা ভুবন বাদ্যকরের, তা সুরক্ষিত রাখতে এবার বাড়িতে লকার নিয়ে এলেন বাদামকাকু

আজকের দিনে যে সোশ্যাল মিডিয়া এক ব্যক্তির জীবনযাত্রার আমূল পরিবর্তন এনে দিতে পারে তার জ্বলজ্যান্ত উদাহরণ ভুবন বাদ্যকর। সাইকেলে করে বাদাম বিক্রি করা থেকে শুরু করে আজকের বিলাসবহুল জীবনযাপন, সবটাই সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে। তার পূর্বের জীবনযাত্রার সাথে আজকের জীবনযাত্রার আকাশ-পাতাল পার্থক্য। রাতারাতি সেলিব্রেটি হয়ে উঠেছেন তিনি।

পেটের টানে গ্রামে গ্রামে কাঁচা বাদাম ফেরি করতেন তিনি। বদলে টাকা পয়সার পাশাপাশি নিতেন পুরোনো হার, মালা, চুড়ি বালা সবকিছুই। তবে এরকম ফেরি তো অনেকেই করে থাকে, আলাদা কী এমন করতেন ভুবন বাদ্যকর? আসলে বাদাম বিক্রির সময় অদ্ভুত ধরনের এক গান গাইতেন তিনি, আর এই গানটিই হলো মূল আকর্ষণ এবং তার ভাগ্য বদলের কান্ডারী। এভাবেই একদিন তার গান ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়, আর তারপর থেকেই রাতারাতি বদলে যায় তার জীবন। ভাঙা ঝুপড়ি ছেড়ে বানিয়ে ফেলেছেন প্রাসাদপ্রম অট্টালিকা‌।

শুধু বাড়ি তৈরি করেই ক্ষান্ত হননি, সেই বাড়িকে সাজিয়েছেন রাজমহলের মতো করে। সেই প্রাসাদের মান বজায় রাখতে আনা হয়েছে দামি দামি সব আসবাবপত্র। আর সেই বাড়ির অমূল্য সম্পদকে সুরক্ষিত রাখতে নিয়ে আসা হলো একটি বহু মূল্যবান লকার। উল্লেখ্য, এই লটারি তাকে উপহারস্বরূপ দিয়েছেন খড়্গপুরের এক ব্যবসায়ী রাজ শামারিয়া। এমনকি নিজ উদ্যোগে লকারটি ভুবন বাদ্যকরের বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছেন তিনি।

ব্যবসায়ীর কথায় অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি করা হয়েছে এই লকারটি। রাজ শামারিয়ার কথায় জানা গেলো যে, তার নিজের কারখানাতেই তৈরি করা হয়েছে ঐ বহুমূল্য লকারটি। ২ কুইন্টালের বেশি ওজনের এই লকারটিতে রয়েছে নম্বর সিস্টেম, অর্থাৎ শুধু নম্বর দিয়েই বহুমূল্য সম্পদ সুরক্ষিত রাখা যায় এই লকারে‌। উক্ত ব্যবসায়ী আরও জানিয়েছেন যে, তিনি আগেই এই লকারটি ভুবন বাদ্যকরকে উপহার দেবেন বলে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছিলেন। এই দিন সেই প্রতিশ্রুতিই পূর্ণ করলেন তিনি।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button