কথা দিয়েও রাখেননি আমির খান, তাঁতশিল্পী স্বামীর মৃত‍্যুর পর বিড়ি বেঁধে পেট চালাচ্ছেন স্ত্রী

মুম্বাইঃ 2009 সালের ডিসেম্বরে মধ্যপ্রদেশের চান্দেরি থেকে একটি পরিবার 3 ইডিয়টস চলচ্চিত্রের অভিনেতাদের সাথে দেখা করার পর লাইমলাইটে আসে। আমির খান এবং কারিনা কাপুর তাদের প্রাণপুর গ্রামে এই পরিবারের সাথে দেখা করেছিলেন। কমলেশ কোরি নামের ওই ব্যক্তি পেশায় একজন তাঁতি, আমির খান যখন তার কাছে বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন তখন কমলেশ রাতারাতি তারকা হয়ে ওঠেন। কমলেশকে সোনার আংটি দিয়ে বন্ধু বানিয়েছিলেন আমির।

আমির খান এবং কারিনা কাপুর 3 ইডিয়টসের প্রচারমূলক সফরের সময় কমলেশের বাড়িতে পৌঁছে কমলেশকে অবাক করে দিয়েছিলেন। দুই অভিনেতাই কমলেশের পরিবারের সঙ্গে সময় কাটান এবং তাদের সঙ্গে ডিনারও করেন। যাওয়ার আগে আমির কমলেশ কোরির কাছ থেকে 25,000 টাকায় 6,000 টাকার শাড়ি কিনে তাকে আবেগপ্রবণ করে তোলেন। জানা গিয়েছে, এই সাক্ষাতের পর আমির খান কমলেশকে বড় প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন।

আমির কমলেশকে বলেছিলেন যে তার যদি কিছু প্রয়োজন হয় তবে তাকে নির্দ্বিধায় জানাতে পারে। কমলেশের শিল্পের প্রশংসা করতে গিয়ে তিনি মুম্বাইয়ে তার জন্য একটি দোকান খুলতে সাহায্য করবেন বলেও জানিয়েছেন। দাবি করা হচ্ছে, গত 12 বছরে অভিনেতা তার বন্ধুর সাহায্য তো দূরের কথা, তাঁর খোঁজ পর্যন্ত নেননি। এদিকে, করোনার সময় প্রয়াত হন কমলেশ। এখন তাঁর পরিবার দুবেলা খাবারের জন্য হাহুতাশ করছে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Varinder Chawla (@varindertchawla)

কমলেশের স্ত্রী কমলা বাই তার 3 সন্তানকে কোনোরকমে বিড়ি তৈরি করে মানুষ করছেন। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, কমলা দাবি করেছেন যে কমলেশ প্রদত্ত মোবাইল নম্বরে আমির খানের সাথে বেশ কয়েকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করেছিলেন, কিন্তু কেউ কখনও সাড়া দেয়নি। তবে, আমিরের বন্ধুর সন্তান এখনও আশা করে যে আমির একদিন তাদের সাহায্য করবে।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button