ভারতীয় সংস্কৃতির সামনে ঝুঁকল আমেরিকা, ডিউটিতে তিলক লাগানোর অনুমতি পেলেন হিন্দু সৈনিক

নয়া দিল্লিঃ  ধর্ম সংস্কৃতি, সভ্যতার এমন একটি রূপ যা প্রতিটি মানুষের জন্য অপরিহার্য। সঠিক ধর্মানুসরণের ফলে মানুষের মধ্যের খারাপ স্বভাব লোপ পায়। বেদ উপনিষদ থেকে আমরা জানতে পারি ধর্ম রক্ষতি রক্ষিতঃ অর্থাৎ ধর্মের রক্ষা করলে ধর্মও তোমাকে রক্ষা করবে। এই ঘটনা সুদূর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবাহিনীতে কর্মরত ভারতীয় বংশোদ্ভূত এয়ারম্যান দর্শন শাহকে নিয়ে।

২০২০ সালের জুন মাসে সামরিক প্রশিক্ষণ শেষে বাহিনীতে যোগ দেওয়ার পর থেকে পরেছিলেন তার ইউনিফর্ম । দর্শন শাহ একজন হিন্দু হওয়ায় ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবে তার দাবী ছিল সামরিক পোশাকের সাথে তাকে যেন তিলক কাটতে বাধা না দেওয়া হয়। দুই বছর পর কোর্টে মামলা চলার পর গত ২২ ফেব্রুয়ারি, তাকে অনুমতি দেয় আদালত।

দর্শন শাহ ইউএস এয়ার ফোর্সের ৯০ তম অপারেশনাল মেডিকেল রেডিনেস স্কোয়াড্রনে, অ্যারোস্পেস মেডিকেল টেকনিশিয়ান হিসাবে কাজ করেন। তিলক পরার অনুমতি পেয়ে উচ্ছসিত দর্শন জানান যে তিলক পরতে তার খুব ভালো লাগে। সাথে তিনি এও বলেন যে তার কর্মস্থলের সহকর্মীরা তাকে অভিনন্দন জানাচ্ছে এ বিষয়ে।

তিনি এও বলেন যে তার দাদু-দিদার প্রভাবেই তিনি ধর্ম, উৎসব এবং রীতিনীতি সম্পর্কে অনেক কিছু জানতে পেরেছেন। তার ছোটবেলা গুজরাটে কাটলেও পাঁচ বছর বয়সেই তিনি আমেরিকা চলে যান। দর্শন জানান, কোর্টের এই সিদ্ধান্তের তিনি খুশি এখন তিনি নিজের কপালে একটি ইংরেজি U আকৃতির তিলক কাটতে পারেন।

ধর্মীয় স্বাধীনতার কথা উঠলে প্রথমেই নাম আসে ভারতের। বিশ্বের প্রায় প্রতিটি ধর্ম, সংস্কৃতি এবং ভাষা ভারতে বর্তমান। এখানে বিশ্বের প্রায় প্রতিটি ধর্মই শান্তিপূর্ণভাবে এবং সমাদৃতভাবে পালন করা হয়।ভারতীয় সংবিধানের ২৫ অনুচ্ছেদে দেশে ধর্মীয় স্বাধীনতার নিশ্চয়তা দেওয়া হয়েছে। ধর্মীয় স্বাধীনতা এবং চর্চা ও প্রচার ভারতে একটি মৌলিক অধিকার।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button