খরচ ১৫০০-র কম! উত্তরবঙ্গের এই হিল স্টেশনে সেরে যায় শরীর, মন দুইই! এর কাছে ফেল দার্জিলিংও

গরম এড়ানোর জন্য লোকেরা প্রায়শই হিল স্টেশনগুলিতে (Hill Station) যায়। তবে বর্তমানে শীতের মরসুম চলছে। তবে তাতে কী? বছরের যে কোনও মরসুমে মানুষ ঘুরতে যেতে পছন্দ করেন। আর পাহাড় (Hill) হলে তো কোনও কথাই নেই। পাহাড়প্রেমীদের কাছে কোনও মরসুমই পাহাড়ে যাওয়ার জন্য বাধা হয়ে দাঁড়ায় না।

ভারতের কয়েকটি জনপ্রিয় হিল স্টেশন হল যেখানে সবচেয়ে বেশি ভিড় হয়। মানালি, উটি, সিমলা, মুসৌরি এবং দার্জিলিং-এর (Darjeeling) মতো হিল স্টেশনগুলির কথা আপনারা নিশ্চয়ই শুনেছেন নিশ্চয়ই বা গিয়েছেন হয়তো। এই সবকিছুর মাঝেও অফবিট হিল স্টেশন নিয়ে কোথাও আলোচনা হয় না। কিন্তু আজ আমরা আপনাকে এমন একটি হিল স্টেশন সম্পর্কে বলব যা দার্জিলিংয়ের সবচেয়ে সুন্দর জায়গার মধ্যে অন্যতম হিসেবে গণ্য হয়।

   

যাঁরা দার্জিলিং যেতে চান না, তাঁরা এখানে যেতে পারেন। দার্জিলিং থেকে মোট ১৫ কিলোমিটার দূরে ৬৫০০ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত দাওয়াইপানি (Dawaipani) ঘুরে আসতে পারেন। এটি একটি ছোট গ্রাম। এখানে গেলে আপনার শরীর ও মন দুটিই ভালো হয়ে যাবে। বলতে পারেন এই জায়গা আপনার জন্য সত্যিই ‘দাওয়াই’ বা ওষুধের কাজ করবে। গ্রামটি ঘন হিমালয় বন দ্বারা বেষ্টিত। এখানকার চারপাশের কিছু সুন্দর দৃশ্য পর্যটকদের মনকে উত্তেজিত করার জন্যই যথেষ্ট।

গ্রামের নামটা একটু অদ্ভুত হলেও এর নিজস্ব তাৎপর্য রয়েছে। এই গ্রামটি ঔষধি উদ্ভিদের জন্য বিখ্যাত। স্থানীয় খোলা নদী নিকটবর্তী এই গ্রামের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। গ্রামে বেশ কয়েকটি বাড়ি রয়েছে। ভিড় থেকে দূরে একটি শান্ত পরিবেশে ছুটি কাটানোর জন্য এটি একটি নিখুঁত গন্তব্য আপনার জন্য।

dawaipani

ট্রেকার এবং পর্বতারোহীদের জন্য এই জায়গাটি কোনও স্বর্গের চেয়ে কম নয়। এমনকি ফটোগ্রাফার এবং পাখি প্রেমীদের জন্যও এটি সেরা জায়গা। এখানে আপনি হিমালয়ের বিভিন্ন প্রজাতির পাখি নিবিড়ভাবে দেখতে পাবেন। মজার ব্যাপার হলো, এই পাখিগুলো আপনি সমতলে কোথাও দেখতে পাবেন না।

আপনি এখান থেকে অনায়াসেই শৈলশহর দার্জিলিং দার্জিলিং জু, টাইগার হিল যেতে পারেন। আবার এখান থেকে লামাহাট্টা, পেশক তিনচুলে, রংলিরংলিয়ট যাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। এনজেপি বা বাগডোগরা থেকে সরাসরি ভাড়া করা গাড়িতে দাওয়াইপানি আসতে পারবেন আপনি। এখানে থাকার জন্য প্রচুর হোম স্টে রয়েছে। থাকা ও খাওয়া খরচ ১২০০ থেকে ১৫০০ টাকায় হয়ে যাবে। তাহলে আর দেরী কেন, আজই উত্তরবঙ্গগামী কোনও ট্রেন বা বাসের টিকিট বুক করুন এবং ঘুরে আসুন দাওয়াইপানি।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর