এই সময়ের পর রাস্তায় দেখেলেই শাস্তি! দিঘায় জারি হল চরম নিষেধাজ্ঞা, সাবধান পর্যটকরা

সমুদ্র নগরী দিঘা (Digha) নিয়ে মানুষের কৌতূহলের শেষ নেই। শীত নেই বর্ষা নেই গ্রীষ্ম নেই, ভ্রমণপ্রিয় বাঙালি হাতে কয়েকটা দিনের ছুটি পেলেই এই দিঘায় ঘুরে আসতে পছন্দ করেন। কারণ এখানে যেতে যেমন সময় কম লাগে ঠিক তেমনই পকেট ফ্রেন্ডলি জায়গাও।

আপনিও কি সাম্প্রতিক সময়ে নিজের মনের মানুষ, বিন্ধু বান্ধব বা পরিবারকে সঙ্গে নিয়ে দিঘা যাওয়ার প্ল্যানিং করছেন? তাহলে সেখানে যাওয়ার আগে অবশ্যই আজকের এই প্রতিবেদনটি ঝটপট পড়ে ফেলুন। দিঘায় ঘুরতে ঘুরতে যাওয়া পর্যটকদের জন্য এখন একটি নয়া নিয়ম লাগু হয়েছে। ফলে সেখানে যাওয়ার আগে বা সেখানে গিয়ে এই নয়া নিয়ম সম্পর্কে যদি না জেনে থাকেন তাহলে বিপদে পড়তে পারেন আপনিই।

   

পর্যটকরা যদি এই নতুন নিয়ম অমান্য করেন তাহলে কপালে শনি নাচবে সকলের। যত সময় এগোচ্ছে সৈকত সুন্দরী দিঘায় অপরাধের প্রবণতাও যেন পাল্লা দিয়ে বাড়ছে। এদিকে এই অপরাধমুক্ত জায়গা করতে বদ্ধপরিকর স্থানীয় প্রশাসন থেকে শুরু করে পুলিশ। অনেকেই আছেন যারা দিঘা যান তাঁরা একটু রাতের দিকে সমুদ্রপাড়ে বসে থাকতে পছন্দ করেন। তবে এবার এই পছন্দ বর্জন করতে হবে সকলকে, নইলে শাস্তির খাড়া নেমে আসতে পারে আপনার ঘাড়ে।

মূলত এবার এবার গভীর রাত পর্যন্ত আর বসে থাকা যাবে না দিঘার সমুদ্রপাড়ে। নিষিদ্ধ করল দিঘা পুলিশ। সেইসঙ্গে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, রাত সাড়ে ১১ টার পর থাকা যাবে না হোটেলের বাইরে। হ্যাঁ ঠিকই শুনেছেন। দিঘা থানার ওসি অভিজিৎ পাত্র বলেন, ‘‘পর্যটকদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে সাড়ে ১১টার মধ্যে সব দোকান বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পর্যটকদেরও সাড়ে ১১টার মধ্যে হোটেলে ঢুকে যেতে বলা হয়েছে। দিঘাজুড়ে মাইকিং করা হয়েছে। এবার রাতে বাইরে থাকলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’’ শুধুমাত্র পর্যটকদেরই নয়, সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রেও। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, রাত সাড়ে এগারোটার পর কোনো দোকানপাটও খুলে রাখা যাবে না।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর