এক ট্রেনেই দিঘা থেকে পুরী! সময় লাগবে মাত্র ৩ ঘণ্টা, পর্যটকদের সুখবর শোনাল রেল

ভ্রমণপ্রিয় বাঙালির কাছে সমুদ্র মানেই হল হয় দিঘা (Digha) নয়তো পুরী (Puri)। এই দুই জায়গা সমুদ্রপ্রেমী বাঙালির কাছে একটা আলাদাই আবেগের জায়গা। তবে সকলের আক্ষেপ একটাই, এই দুই জায়গার দূরত্ব অনেকটাই বেশি। এমনকি দিঘা থেকে পুরী বা পুরী থেকে দিঘা আসার সরাসরি বাস বা কোনও ট্রেন নেই।

অনেকেই ভাবতেন, এই দুই জায়গা যদি বিশেষ করে রেলের (Indian Railways) সঙ্গে জুড়ে গেলে কীই না ভালো হত। তবে আর এই নিয়ে আক্ষেপ করতে হবে না। কারণ এবার দিঘা থেকে পুরী একটা ট্রেনেই চলে যাওয়া যাবে। আর সময়ও লাগবে মাত্র ৩ ঘণ্টা। কী শুনে চমকে গেলেন তো? কিন্তু এটাই দিনের আলোর মতো সত্যি

   

জানা যাচ্ছে, দিঘার বাসিন্দাদের জন্য বড় সুখবর শুনিয়েছে খোদ রেল। তৃণমূল সাংসদ শিশির অধিকারী সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জানিয়েছেন যে এবার দিঘা থেকে জলেশ্বর (Jaleswar) রেললাইন দ্রুতই কাজ চলছে। দিঘা থেকে জলেশ্বর পর্যন্ত ৭২ কিমি রাস্তা রেলপথ সম্প্রসারণের কাজ ২০১১-১২ সালে অনুমোদিত হয়েছিল।

এদিকে এই রেলপথ তৈরি হয়ে গেলে একদিকে যেমন পর্যটকদের পোয়া বারো হবে ঠিক তেমনই ব্যবসায়ীরাও উপকৃত হবেন বলে আশাবাদী সকলে। দিঘা এবং ওড়িশার জলেশ্বরকে রেলপথে জোড়ার জন্য প্রয়োজন ৫০৭ একর জমি। তার মধ্যে ১৩৭ একর পশ্চিমবঙ্গে এবং ৩৭০ একর ওড়িশায়।

digha train

যাইহোক, এই প্রকল্পের জন্য রেলের তরফ থেকে ১৫৮৪ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হলেও পশ্চিমবঙ্গে জমি জটের কারণে কাজ আটকে থাকে। তবে এই প্রকল্প খুব তাড়াতাড়ি শেষ হবে বলে আগেই আশ্বাস দিয়েছেন রেল মন্ত্রী অশ্বিনী কুমার বৈষ্ণব। এদিকে এই রেললাইন তৈরি হয়ে গেলে দিঘা থেকে পুরীর দূরত্ব কমবে এক ধাক্কায় ৩ ঘণ্টা।

বিগত ৭ বছর ধরে সাংবাদিকতার পেশার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ায় সাবলীল। লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বই পড়ার নেশা।

সম্পর্কিত খবর