সামরিক খাতে লম্বা ঝাঁপ ভারতের! রাশিয়া, জার্মানিকে ফেলে বর্তমানে বিশ্বে তিন নম্বর

নয়া দিল্লিঃ এখনো থামেনি রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ। এই যুদ্ধ যুযুধান চলছে সারা দুনিয়া জুড়ে। ত্রস্ত সাধারণ মানুষ। এরই মধ্যে এলো স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউট (SIPRI) এর নতুন রিসার্চ পেপার। রিসার্চ পেপার থেকে জানা যাচ্ছে যে,করোনা পরিস্থিতিতেও সামরিক ব্যয় সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে। সামরিক খাতে সারা বিশ্ব খরচ করেছে ২.১ ট্রিলিয়ন ডলার! এছাড়া সামরিক খাতে ব্যয়ের নিরিখে তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে ভারত।

সবচেয়ে বেশি এগিয়ে রয়েছে দুই মহা প্রতিদ্বন্দ্বি আমেরিকা এবং চিন। ঠিক এরপরই জায়গা করেছে ভারত। পৃথিবীতে অস্ত্র প্রতিযোগিতায় নাম সমস্ত দেশগুলির মধ্যে SIPRI রিপোর্ট অনুযায়ী আমেরিকা, চিন, ভারত, ব্রিটেন এবং রাশিয়া নিজেদের অস্ত্রের জন্য সবচেয়ে বেশি ব্যয় করেছে। ২০২১ সালে ৭৬.৭ বিলিয়ন ডলার খরচ করে সামরিক ক্ষেত্রে খরচের নিরীখে তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে ভারত। SIPRI রিপোর্ট ঘাটলে দেখা যায় প্রতি বছর ভারতের এই খরচ বেড়েই চলেছে।

২০২০ সালের তুলনায় ০.৯ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে সামরিক খাতে খরচ। এবং যদি ২০১২ সালের সাথে তুলনা করা হয় তাহলে মোট ৩৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে এই খরচ। করোনা অতিমারীর মধ্যেও নিজেদের সামরিক খাতে ব্যয় বাড়িয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। এসময়ই সামরিক খাতে ব্যয় সর্বকালের সর্বোচ্চ জায়গায় পৌঁছেছে। এইনিয়ে টানা ৭বছর ধরে সারা পৃথিবীর সামরিক খাতে ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে।

SIPRI রিপোর্ট থেকে জানা যায় যে, আমেরিকা একাই সারা বিশ্বের সামরিক ব্যয়ের ০.৭ শতাংশ বাড়িয়ে দিয়েছে। সারা পৃথিবীর সামরিক খাতে মোট খরচ ২১১৩ বিলিয়ন ডলার। এরমধ্যে আমেরিকার একারই খরচ ৮০১ বিলিয়ন ডলার। যদিও গত বছরের তুলনায় ১.৪ শতাংশ কমেছে এই খরচ। তালিকায় দ্বিতীয় স্থানাধিকারি চিন। প্রতিরক্ষা খাতে তাদের মোট ব্যয় ২৯৩ বিলিয়ন ডলার। শুধু তাই না প্রত্যেক বছরের হিসেব দেখলে জানা যায় যে ২০২০ সালের তুলনায় ২০২১ সালে প্রতিরক্ষা খাতে চীনের ব্যয় বেড়েছে ৪.৭ শতাশ।

এছাড়াও আমেরিকা, চিন, ভারত, ব্রিটেন এবং রাশিয়া, এই পাঁচটি সর্বোচ্চ সামরিক ব্যয়কারী দেশই ২০২১ সালে মোট সামরিক ব্যয়ের সিংহভাগ অংশের জন্য দায়ী। এই পাঁচটি দেশেরই মোট খরচ সারা বিশ্বের মোট খরচের ৬২ শতাংশ।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button