দিনে ১৪ ঘণ্টা করত কাজ, এক আইডিয়ায় বদলে যায় জীবন! ডেলিভারি বয় আজ কোটি টাকার মালিক

জীবনে সাফল্য এবং ব্যর্থতা দিয়েই সাজানো থাকে আমাদের জীবন। জীবন মানে এক লড়াই আর তেমনই এক লড়াইয়ের কথা জানাবো আপনাদের। জীবনের শুরুটা করেছিলেন আমাজন কোম্পানির একজন ডেলিভারি বয় হিসেবে। সেখানে অনেক কষ্টে বিনিদ্র রাত কাটিয়ে আজ নিজের কাঙ্ক্ষিত সাফল্যে পৌঁছাতে পেরেছেন ২৮ বছর বয়সী তরুণ কাইফ ভাট্টি।

বহু বছরের পরিশ্রমের পর প্রায় ৬৬ হাজার টাকা বাঁচিয়েছিলেন তিনি। এরপর তিনি নিজের সেই পুঁজি নিয়ে একটি বড় ঝুঁকি নিয়েছিলেন। নিজের সমস্ত অর্থ বিনিয়োগ করেন ক্রিপ্টোকারেন্সিতে। আর সেখানে তার বিনিয়োগের কারণেই মাত্র ২৮ বছর বয়সেই কোটিপতি হয়ে গিয়েছেন ডেলিভারি পেশার সাথে যুক্ত এই যুবক।

কাইফ ভাট্টি থাকেন ব্রিটেনের রাজধানী লন্ডনে। এমন একটা সময় ছিল যখন স্কুলে অন্য সহপাঠীদের সামনে তার শিক্ষকরা তাকে অপমান করতেন। সর্বদাই মানুষের সামনে অপমানিত হওয়া সেই ব্যক্তি আজ নিজের জীবনে সাফল্যর হিসেবে ছড়িয়ে গিয়েছেন বহু সহপাঠীকে। ২০১৭ সালে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক শেষ করার পর, কাইফ ডেলিভারি বয় হিসেবে কাজ শুরু করেন।

দিনে প্রায় ১৪ ঘন্টা কাজ করতে হতো নিজের দুঃখের জীবন থেকে বেরিয়ে আসার জন্য। তার বেশিরভাগ সময়ই কেটে যেত ডেলিভারির কাজেই। এরপর তিনি নিজের অবস্থার ওপর বিরক্ত হয়ে এক কঠিন সিদ্ধান্ত নেন। সেই বিরাট ঝুঁকিপূর্ন সিদ্ধান্তের ফলে তার সারাজীবনের সঞ্চিত অর্থ একেবারে ডুবেও যেতে পারতো। কিন্তু তবুও তিনি সেই বিপদকে গ্রহণ করলেন।

আসলে কাইফ তার জমা অর্থের পুরোটাই ক্রিপ্টোকারেন্সিতে বিনিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নেন। সে সময় ভার্জ নামে একটি মুদ্রাতে প্রায় ৬৬ হাজার টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন তিনি। আর তার কয়েক বছরের মধ্যে এই মুদ্রার দাম দ্রুত বাড়তে শুরু করে। সেখানে ভার্জ থেকে তিনি মোট ২৮ লক্ষ টাকা আয় করেন। আর তারপরই নিজের চাকরি ছেড়ে দেন।

kaif bhatti inspiration

চাকরী ছাড়ার পর তার সেই আয় আরো দ্রুত বাড়তে থাকে। একসময় তিনি কোটির অংককেও হার মানিয়ে এগিয়ে যান আরো সামনের দিকে। নিজের দুরবস্থা কাটিয়ে আজ তিনি একজন রীতিমত সফল এক ব্যক্তি। বর্তমানে তার মোট সম্পদের পরিমাণ ৫ কোটি টাকা!

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button