হোটেল রুমে গোপনে রোম্যান্স চালাচ্ছিলেন নায়ক নায়িকা, হাতেনাতে ধরলেন স্ত্রী এবং তেড়ে গেলেন জুতো নিয়ে!

এতদিন জুড়ে ভারতবাসী শুধুমাত্র তাদের প্রিয় বলিউড স্টারদের কেচ্ছা, পরকীয়া নিয়ে চর্চা করতে এবং দেখতে অভ্যস্ত হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু এবার সংবাদ আসছে দক্ষিণ ভারত থেকে। আবারো সংবাদ শিরোনামে দক্ষিণী অভিনেতা নরেশ, কিন্তু এবার কোনো সিনেমা নয় বরং বেশ অযাচিত কারনে লাইমলাইটে এসেছেন তিনি। কিন্তু কি কারনে জনসমক্ষে বহুল চর্চিত হচ্ছেন ?

অভিনেতা নরেশের দাম্পত্য কলহে একদম তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া। গতকাল রবিবারই এক হোটেলে নরেশের সাথে ছিলেন বিখ্যাত অভিনেত্রী পবিত্রা লোকেশ। সেখানেই ঘটে এক বিরাট হইহই কান্ড। সেখানে পৌঁছে যান তার স্ত্রী রাম্যা। আর পৌঁছেই নিজের রণচন্ডি রূপ ধারন করেন তিনি। রীতিমত জুতো পেটা করতে এগিয়ে যান তার স্বামী এবং তার প্রেমিকার দিকে। যদিও উপস্থিত পুলিশ অফিসাররা তাকে আটকানোর চেষ্টা করেন। আর সেই ভিডিওই ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে, অভিনেতা নরেশ লিফটের কাছে গিয়ে তার স্ত্রীকে মশকরা করতেও শুরু করেন। আর তারপরই নিজেকে আর সামলাতে না পেরে রাম্যা রাগে তেড়ে যান তার স্বামীর দিকে। আসলে বেশ কয়েকদিন ধরেই রমেশবাবুর সৎভাই নরেশকে নিয়ে বহুল আলোচনা চলেছে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে আর তারই মাঝে রয়ে যায় যে, অভিনেত্রী পবিত্রাকে নাকি তিনি বিয়েও করে ফেলেছেন। যদিও প্রাথমিক ভাবে এই অভিযোগ অস্বীকার করে তার দাবি ছিল যে, এসবই তার স্ত্রী এর রটানো খবর। কিন্তু এরই মধ্যে হোটেলে পুলিশ নিয়ে রাম্যা হাজির হলে দুজনকেই এক রুম থেকে বের হতে দেখা যায়।

এর আগে অভিনেতা নরেশের যে, পরকীয়া রয়েছে সেই ব্যাপারে জানিয়েছিলেন তার স্ত্রী কিন্তু এতদিন তা নাকচ করে দিয়েছিলেন তিনি। এমনকি তার স্ত্রী এর দাবি ছিল যে, গোপনে ইতিমধ্যেই বিয়ে করে ফেলেছেন তারা। বেশ কিছু সময় ধরেই আলাদা থাকতে শুরু করেছেন তারা। জানিয়ে রাখি রাম্যা নরেশের তৃতীয় স্ত্রী এবং অভিনেত্রী পবিত্রা এর আগে বিয়ে করেছিলেন সুচেন্দ্র প্রসাদকে। যদিও এখন তারা আলাদা থাকেন এবং এই সময়ই পবিত্রা এবং নরেশের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে ওঠে বলে দাবি রাম্যার।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button