বাবা মাতাল, ঝুড়ি বিক্রি করে সন্তানকে পড়ান মা! ফুটপাতে শুয়ে রাত কাটানো ছেলে আজ IAS

UPSC-এর মতো পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নেওয়া নিজের জন্যই একটি বড়ো সংগ্রাম৷ কিন্তু যদি বাড়ির আর্থিক অবস্থা দুর্বল হয় এবং বাড়ির জন্য ভাবতে হয় তাহলে চাইলেও পড়াশোনার জন্য খুব কমই সময় বের করতে পারা সম্ভব। আজ এমনই এক আইএএস অফিসারের কথা বলতে যাচ্ছি যিনি হাল ছাড়েনি। তার নাম এম. শিবগুরু প্রভাকরণ। যিনি কঠিন পরিস্থিতির মধ্যেও সাফল্য অর্জন করেছেন।

তবে প্রভাকরণের এই সাফল্যে তার মায়ের বড় হাত রয়েছে, যিনি নিজে একটি সাধারণ পরিবারের সদস্য। তার মা বাঁশের ঝুড়ি বিক্রি করে পরিবার চালাতেন। যে টাকা আসত, তা দিয়ে দুবেলা সংসারের খাওয়া পরা কোনোভাবে হয়ে যেত। কিন্তু শিবগুরু প্রভাকরণের মায়ের দৃঢ় ইচ্ছার কারণে তিনি নিজের পড়াশোনার পূর্ণ সুযোগ পান।

তামিলনাড়ুর থাঞ্জাভুর জেলার ওটানকাডু গ্রামের বাসিন্দা প্রভাকরণের শৈশব কেটেছে দারিদ্রের মধ্যে দিয়ে। বাবা পুরোপুরি মাতাল হওয়ায় পুরো সংসারটাই একেবারে নষ্ট হয়ে যায়। এরপর তিন সন্তানকে মানুষ করতে তার মাকে অনেক কষ্ট করতে হয়েছে। প্রভাকরণের মা নারকেল পাতা এবং বাঁশের ঝুড়ি বিক্রি করে সংসার চালাতেন।

ছোটবেলা থেকেই ভালো হওয়ায় হাইস্কুল ও ইন্টারমিডিয়েট পরীক্ষায় ভালো নম্বর পেয়েছিলেন প্রভাকরণ। পরিবারের আর্থিক অবস্থা এতটাই খারাপ ছিল যে বাড়ির আর্থিক অবস্থার কথা মাথায় রেখে প্রভাকরণকে দ্বাদশ শ্রেণীর পরে ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার স্বপ্ন ছেড়ে দিয়ে শুরু করতে হয় কাজ। এরপরে তার এক বন্ধুর তাকে বলেছিল যে, সেন্ট টমাস মাউন্ট নামের একজন অনগ্রসর শ্রেণীর লোকদের সাহায্য করেন।

বন্ধুর পরামর্শে প্রভাকরণ সেন্ট টমাসের সাথে দেখা করতে যান। সেখান থেকে আসার পর আবারও তিনি তার পড়াশোনার প্রতি দৃষ্টিভঙ্গি পুরোপুরি পাল্টে ফেলেন। তিনি আবার IIT-JEE এর জন্য প্রস্তুতি নিতে শুরু করেন। কঠোর পরিশ্রমী এবং প্রতিশ্রুতিশীল হওয়ায়, প্রভাকরণ খুব শীঘ্রই আইআইটি-মাদ্রাজে ভর্তি হয়ে যান। সেখানেই তিনি ইঞ্জিনিয়ারিং পড়া শেষ করেন এবং নিজের স্নাতক সম্পন্ন করেন।

জীবনের প্রথম দিকে তাকে ঘুমোতে হতো চেন্নাইয়ের রেলস্টেশনে। এরপর IIT মাদ্রাজ থেকে B.tech. করার পর সেখান থেকে নিজের M.Tech সম্পন্ন করেন। তবে এর মধ্যেই তিনি জানতে পারেন ইউপিএসসি পরীক্ষার কথা। এবং ইঞ্জিনিয়ারিং শেষ করার পরেই UPSC পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি শুরু করেছিলেন। পড়াশুনা। তবে শিবগুরু প্রভাকরনের UPSC পরীক্ষায় সহজেই সাফল্য পাননি। তিনি প্রথমে সিলেবাস এবং এর প্যাটার্নটি খুব ভালভাবে বুঝে নিয়েছিলেন। তারপর এনসিইআরটি বই পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে অধ্যয়ন করেন। কিন্তু সঠিক কৌশলের অভাবে তাকে ইউপিএসসি পরীক্ষায় ক্রমাগত ব্যর্থতার সম্মুখীন হতে হয় কিন্তু এরপরই আসে সেইদিন সেদিন তিনি উতরে যান UPSC পরীক্ষার হার্ডল।

➦ আপনার জন্য বিশেষ খবর

Back to top button